1. admin@nagorikexpress.com : নাগরিক এক্সপ্রেস : Nagorik Express প্রশাসন
  2. rd278591@gmail.com : Rahul Rahulrd : Rahul Rahulrd
মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ০১:১২ অপরাহ্ন
নোটিশ :
নাগরিক এক্সপ্রেস পত্রিকার সাংবাদিক হিসাবে কাজ করতে হলে আজই আমাদের অনলাইন পেইজে অথবা ই-মেইল নাম্বারে অথবা আমাদের মোবাইল নাম্বারে যোগাযোগ করুন প্রতিটি জেলার শহরে সাংবাদিক নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে।   নাগরিক এক্সপ্রেস এর বিভিন্ন জেলার সাংবাদিকদের নাম এবং পদবী। নাম: তানজির আহম্মেদ সানি রিপোর্টার: ঢাকা জেলা নাম: নোমান খান রিপোর্টার: মোহাম্মদপুর ঢাকা। নাম: ইসমাইল হোসেন রিপোর্টার:রাজশাহী জেলা নাম : মেজবাহ উদ্দিন রিফাত রিপোর্টার : মোহাম্মদপুর ঢাকা মোঃ জাহাঙ্গীর রাজীব রাজু রিপোর্টার - ভেড়ামারা, কুষ্টিয়া। নাম: প্রান্ত মৃধা রিপোর্টার: নরসিংদী নামঃসাকিব হাসান প্রিয়াস প্রতিনিধিঃ কৃষি ইনস্টিটিউট, ব্রাহ্মণবাড়িয়া মকবুল হোসেন প্রতিনিধিঃ মিঠামইন,কিশোরগঞ্জ নাম : খালিদ সাইফুল চঞ্চল রিপোর্টার : কুষ্টিয়া জেলা নাম: এইচ এম জুয়েল রিপোর্টার: মাগুরা সদর মাগুরা জেলা নাম: আজাদ নাদভী রিপোর্টার: মুন্সিগঞ্জ জেলা নাম: ইসমাইল হোসেন রিপোর্টার:রাজশাহী জেলা নাম:মোঃইনজামামুল হক জুয়েল রিপোর্টার:সাতক্ষীরা জেলা নামঃ ফৌজি হাসান খান রিকু রিপোর্টারঃ লৌহজং উপজেলা নামঃ মুশফাকুর রহমান সিলেট জেলা প্রতিনিধি নামঃইমতিয়াজ উদ্দিন কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি    
শিরোনাম :
স্বামীর হাতে খুন হয়েছেন নায়িকা শিমু রিপন’রা মাঠে থাকলে জিতে যায় নৌকা, নারায়ণগঞ্জে আইভীর হ্যাটট্রিক জয়। রামেক হাসপাতালে আবারও বেড়েছে শনাক্তর হার, মৃত্যু ১ রামেকে গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় ১ জনের মৃত্যু ১২ বছরের নিচের শিক্ষার্থীদের পরবর্তীতে পরিস্থিতি অনুযায়ী ব্যবস্থা; শিক্ষা মন্ত্রী স্বাস্থ্যখাতের সাফল্যে বাংলাদেশকে রোল মডেলে পরিণত করেছে সরকার রাতভর চলছে অবধৈ পুকুর খননের মহোৎসব আশুলিয়ায় নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানকে গণসংবর্ধনা বিধিনিষেধ না মানলে দেওয়া হবে লকডাউন স্বাস্থ্যমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইয়ুথ ভলান্টিয়ার এ্যাওয়ার্ড ২০২০ অর্জনে মইনীয়া যুব ফোরাম সোনারগাঁও শাখাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। 

অস্থায়ী ভিসাধারীর কেউই অস্ট্রেলিয়ার সামাজিক সুরক্ষা সুবিধা পাবেন নাঃ অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী

  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ৩ এপ্রিল, ২০২০
  • ৩০১ সময় দেখা

অাল মোহাইমিনুল খান, অন্তর্জাতিক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি।

অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন শিক্ষার্থীসহ আন্তর্জাতিক ভ্রমণকারীদের অস্ট্রেলিয়া থেকে তাঁদের নিজ দেশে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় অস্ট্রেলিয়ার রাজধানী ক্যানবেরায় জাতীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর তিনি এ কথা বলেন। অস্ট্রেলিয়ায় যাঁরা বিভিন্ন অস্থায়ী ভিসার অধীনে আছেন এবং খরচ নির্বাহের সামর্থ্য নেই, তাঁদের বিকল্প হচ্ছে নিজ দেশে ফিরে যাওয়া। বললেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী।

পরিসংখ্যান বলছে, অস্ট্রেলিয়ায় বর্তমানে ৫ লাখেরও বেশি আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থী এবং সব মিলিয়ে প্রায় ১০ লাখের বেশি অস্থায়ী ভিসাধারী রয়েছেন, যাঁরা ইতিমধ্যে করোনাভাইরাসের বিধিনিষেধের কারণে কাজ্যুয়াল ও পার্টটাইম চাকরি হারিয়েছেন। তাঁরা এই দুর্যোগে ঘোষিত অস্ট্রেলিয়া সরকারের সামাজিক সুরক্ষা সুবিধাও পাবেন না। তা ছাড়া সীমিত বিমান চলাচলের কারণে নিজ দেশে ফিরে যাওয়ার পথও সংকীর্ণ হয়ে আছে। এ জন্য বিভিন্ন দেশের এই বিশাল সংখ্যক অস্থায়ী ভিসাধারীরা কী করবেন, তা বুঝে উঠতে পারছেন না। গণমাধ্যমে অনেকেই এ অভিযোগ করছেন। যদিও অস্ট্রেলিয়ায় আসা শিক্ষার্থীরা তাঁদের পড়াশোনার এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় খরচ নির্বাহের সামর্থ্য রয়েছে—এমন প্রমাণপত্র দেখানোর পরই ভিসা মঞ্জুর করা হয়।

স্কট মরিসন আরও বলেন, অস্ট্রেলিয়াকে অবশ্যই তাদের নাগরিক এবং স্থায়ী বাসিন্দাদের ওপর নজর দেওয়া উচিত, যাতে তাঁদের সর্বাধিক অর্থনৈতিক সমর্থন নিশ্চিত করা যায়। ফলে এটা স্পষ্ট, অস্ট্রেলিয়ায় বর্তমানে ৫ লাখেরও বেশি আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থী এবং আরও প্রায় ১০ লাখের বেশি অস্থায়ী ভিসাধারীর কেউই অস্ট্রেলিয়ার সামাজিক সুরক্ষা সুবিধা পাবেন না।

এক পরিসংখ্যান বলছে, ভ্রমণ অস্থায়ী ভিসায় ব্যাকপ্যাকাররা যে শেয়ারহাউস ও ভূগর্ভস্থ হোস্টেলগুলোতে থাকেন, সেগুলো অধিক জনস্বাস্থ্য ঝুঁকিপূর্ণ। কিন্তু অস্ট্রেলিয়া সরকার অপরিহার্য নয় এমন পরিষেবা বন্ধ করলেও বিদেশিদের থাকার এ স্থানগুলো আপাতত বন্ধ করতে পারছে না।

তথ্যসূত্রঃ দ্যা ডেইলি মেইল, এবিসি নিউজ অস্ট্রেলিয়া।

অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে অবস্থানরত ওয়েস্টার্ন সিডনি ইউনিভার্সিটির একজনি শিক্ষার্থী সাঈদ রায়হান শাহরিয়ার জানিয়েছেন, “এই সিদ্ধান্তে আমি ব্যক্তিগত ভাবে অনেক চিন্তিত । আমাদের টাকা দিয়ে তারা দেশ চালায়।আর এখন আমাদের কষ্টের সময়ে তিনি সরে যাচ্ছে । কিছু বলার নাই আসলে। অনেক কষ্ট থেকে বলছি যে অযথাই মা বাবার এত টাকা নষ্ট করলাম। ধন্যবাদ।”

অন্যদিকে এখানে পড়াশোনা করতে আসা বিপুলসংখ্যক বাংলাদেশি শিক্ষার্থীও কাজ হারিয়েছেন। কত দিন এ পরিস্থিতি চলে, তা নিয়ে অভিভাবকদের পাশাপাশি এখানকার সচেতন মহলও চিন্তিত। সীমিত আকারে হলেও সিডনিতে বাংলাদেশি কমিউনিটির কিছু মানুষ এই শিক্ষার্থীদের সহযোগিতা করার জন্য বিভিন্ন পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে আসছেন বলে জানিয়েছেন অনেকে।

তথ্যসূত্রঃ নিজস্ব প্রতিবেদক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ধরনের আরো সংবাদ
© নাগরিক এক্সপ্রেস । সর্বসত্ব সংরক্ষিত। নাগরিক এক্সপ্রেস এর প্রকাশিত প্রচলিত কোনো সংবাদ তথ্য ছবি আলোকচিত্র রেখা চিত্র ভিডিও চিত্র অডিও কনটেস্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামত এর জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ণ লেখক এর
Theme Customized By Theme Park BD
error: Content is protected !!