1. admin@nagorikexpress.com : নাগরিক এক্সপ্রেস : Nagorik Express প্রশাসন
  2. rd278591@gmail.com : Rahul Rahulrd : Rahul Rahulrd
শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৮:২৬ অপরাহ্ন
নোটিশ :
নাগরিক এক্সপ্রেস পত্রিকার সাংবাদিক হিসাবে কাজ করতে হলে আজই আমাদের অনলাইন পেইজে অথবা ই-মেইল নাম্বারে অথবা আমাদের মোবাইল নাম্বারে যোগাযোগ করুন প্রতিটি জেলার শহরে সাংবাদিক নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে।   নাগরিক এক্সপ্রেস এর বিভিন্ন জেলার সাংবাদিকদের নাম এবং পদবী। নাম: তানজির আহম্মেদ সানি রিপোর্টার: ঢাকা জেলা নাম: নোমান খান রিপোর্টার: মোহাম্মদপুর ঢাকা। নাম: ইসমাইল হোসেন রিপোর্টার:রাজশাহী জেলা নাম : মেজবাহ উদ্দিন রিফাত রিপোর্টার : মোহাম্মদপুর ঢাকা মোঃ জাহাঙ্গীর রাজীব রাজু রিপোর্টার - ভেড়ামারা, কুষ্টিয়া। নাম: প্রান্ত মৃধা রিপোর্টার: নরসিংদী নামঃসাকিব হাসান প্রিয়াস প্রতিনিধিঃ কৃষি ইনস্টিটিউট, ব্রাহ্মণবাড়িয়া মকবুল হোসেন প্রতিনিধিঃ মিঠামইন,কিশোরগঞ্জ নাম : খালিদ সাইফুল চঞ্চল রিপোর্টার : কুষ্টিয়া জেলা নাম: এইচ এম জুয়েল রিপোর্টার: মাগুরা সদর মাগুরা জেলা নাম: আজাদ নাদভী রিপোর্টার: মুন্সিগঞ্জ জেলা নাম: ইসমাইল হোসেন রিপোর্টার:রাজশাহী জেলা নাম:মোঃইনজামামুল হক জুয়েল রিপোর্টার:সাতক্ষীরা জেলা নামঃ ফৌজি হাসান খান রিকু রিপোর্টারঃ লৌহজং উপজেলা নামঃ মুশফাকুর রহমান সিলেট জেলা প্রতিনিধি নামঃইমতিয়াজ উদ্দিন কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি    

টাঙ্গাইলে বিনা বিচারে ছয় মাস জেল মুক্তিযোদ্ধার ছেলের

  • আপডেট সময় : বুধবার, ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ৩২৫ সময় দেখা

টাঙ্গাইলের একটি হত্যা মামলায় সন্দেহভাজন হিসেবে আটক হয়ে বিনাবিচারে ছয় মাস ধরে কারাভোগ করেছেন মুক্তিযোদ্ধার ছেলে শরীফ হোসেন (৪২) জানান মুক্তিযোদ্ধা বাবা।

সন্তানের জন্য আইন জীবী নিয়োগের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছেন বৃদ্ধ মুক্তিযোদ্ধা বাবা।

ছেলেকে বাঁচাতে তিনি এখন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা চেয়েছেন।

তিনি জানান গত ১০ জুলাই টাঙ্গাইল গোয়েন্দা পুলিশ স্থানীয় হাসান আলী রেজা হত্যা মামলায় সন্দেহভাজন হিসেবে পৌর এলাকার মুক্তিযোদ্ধা মকবুল হোসেনের ছেলে শরীফ হোসেনকে গ্রেফতার করে

১৬ জুলাই তাকে জেলহাজতে পাঠায় পুলিশ।

শরিফকে ৩ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে ।

পুলিশ ওই হত্যার কোন প্রমাণ পায়নি বলে জানান মকবুল হোসেন ।

তিনি বলেন সাক্ষ্য-প্রমাণ পায়নি বলে জানান মকবুল হোসেনে।

তিনি বলেন সাক্ষ-প্রমাণ ও তদন্তে শরীফ যদি দোষী প্রমাণিত হয় তবে তার যে সাজা হবে তা তারা মাথা পেতে নেবে।

কিন্তু আমার নির্দোষ ছেলেকে বাঁচাতে একজন আইনজীবী নিয়োগের জন্য জেলা বার সমিতিতে দরখাস্ত করেও ছেলের মিথ্যা মামলার জন্য কোন আইনজীবীর পাইনি।

আমার ছেলের মিথ্যা মামলার জন্য লড়তে কোনো আইনজীবী কি পাওয়া যাচ্ছে না।
এদিকে বৃদ্ধ বাবা দিশেহারা হয়ে প্রায় মৃত্যুর শরণাপন্ন।

বৃদ্ধ বাবা এখন একা কিভাবে এই আদালত পাড়া দৌড়ে থেকে জামিনে মুক্তি করবেন কিভাবে ওকে পাগল নিয়ে চিন্তিত পিতা।

পরিবারের বড় ছেলে ছেলে শরীফ আর ছোট ছেলে দেশের বাহিরে আছেন।
শরিফ উদ্দিনের স্ত্রী এখন স্বামীর এই করুন পরিনতি দেখে নিজেও কাতর হয়ে পড়েছেন।

তাই প্রশাসনের নিকট তার পরিবারের দাবি এই যে শরীর যদি দোষী সাব্যস্ত হয় তাহলে শাস্তি দেয়া হোক তাতে কোন আপত্তি থাকবে না।

তবে নির্দোষ ছেলেকে এভাবে দিনের পর দিন যেন জেলে পচে মরতে না হয় তাই সরকারের নিকট পরিবারের আবেদন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ধরনের আরো সংবাদ
© নাগরিক এক্সপ্রেস । সর্বসত্ব সংরক্ষিত। নাগরিক এক্সপ্রেস এর প্রকাশিত প্রচলিত কোনো সংবাদ তথ্য ছবি আলোকচিত্র রেখা চিত্র ভিডিও চিত্র অডিও কনটেস্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামত এর জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ণ লেখক এর
Theme Customized By Theme Park BD