1. admin@nagorikexpress.com : নাগরিক এক্সপ্রেস : Nagorik Express প্রশাসন
  2. rd278591@gmail.com : Rahul Rahulrd : Rahul Rahulrd
বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২, ০২:১৮ অপরাহ্ন
নোটিশ :
নাগরিক এক্সপ্রেস পত্রিকার সাংবাদিক হিসাবে কাজ করতে হলে আজই আমাদের অনলাইন পেইজে অথবা ই-মেইল নাম্বারে অথবা আমাদের মোবাইল নাম্বারে যোগাযোগ করুন প্রতিটি জেলার শহরে সাংবাদিক নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে।   নাগরিক এক্সপ্রেস এর বিভিন্ন জেলার সাংবাদিকদের নাম এবং পদবী। নাম: তানজির আহম্মেদ সানি রিপোর্টার: ঢাকা জেলা নাম: নোমান খান রিপোর্টার: মোহাম্মদপুর ঢাকা। নাম: ইসমাইল হোসেন রিপোর্টার:রাজশাহী জেলা নাম : মেজবাহ উদ্দিন রিফাত রিপোর্টার : মোহাম্মদপুর ঢাকা মোঃ জাহাঙ্গীর রাজীব রাজু রিপোর্টার - ভেড়ামারা, কুষ্টিয়া। নাম: প্রান্ত মৃধা রিপোর্টার: নরসিংদী নামঃসাকিব হাসান প্রিয়াস প্রতিনিধিঃ কৃষি ইনস্টিটিউট, ব্রাহ্মণবাড়িয়া মকবুল হোসেন প্রতিনিধিঃ মিঠামইন,কিশোরগঞ্জ নাম : খালিদ সাইফুল চঞ্চল রিপোর্টার : কুষ্টিয়া জেলা নাম: এইচ এম জুয়েল রিপোর্টার: মাগুরা সদর মাগুরা জেলা নাম: আজাদ নাদভী রিপোর্টার: মুন্সিগঞ্জ জেলা নাম: ইসমাইল হোসেন রিপোর্টার:রাজশাহী জেলা নাম:মোঃইনজামামুল হক জুয়েল রিপোর্টার:সাতক্ষীরা জেলা নামঃ ফৌজি হাসান খান রিকু রিপোর্টারঃ লৌহজং উপজেলা নামঃ মুশফাকুর রহমান সিলেট জেলা প্রতিনিধি নামঃইমতিয়াজ উদ্দিন কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি    
শিরোনাম :
করোনার ব্যাপক বিস্তার, একদিনে আক্রান্ত ১৪ হাজার ছাড়াল শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ঢোকার মুখে চেকপোস্ট বসিয়েছেন শিক্ষার্থীরা মহামারিতে বিশ্বজুড়ে কমেছে কনডম বিক্রি প্রকৃত বন্ধু – সাবিকুন নাহার চাঁপাইনবাবগঞ্জে ট্রেন-ভটভটি সংঘর্ষে নিহত ৩ মতলবে ডেভেলপমেন্ট কাপ ফুটবল আবাসিক প্রশিক্ষণ ক্যাম্পেইন উদ্বোধন ————————– নগদ ৫০ লক্ষ টাকা এবং ১৩ টি হ্যান্ডসেট ডাকাতি। প্রগতি স্বরণীতে ফার্নিচারের শো-রুমে আগুন রথীন্দ্রনাথ সরকারের নতুন বই পুষ্পগন্ধা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৮৬তম জন্মদিন উপলক্ষে ভুরুলিয়া ইউনিয়ন বিএনপির অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের উদ্দেগে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল। 

নৌকাডুবির ঘটনার বর্ণনা দিলেন বেঁচে যাওয়া বর রুমন

  • আপডেট সময় : রবিবার, ৮ মার্চ, ২০২০
  • ১৪৬ সময় দেখা

নৌকাডুবির ঘটনার বর্ণনা দিলেন বেঁচে যাওয়া বর রুমন

স্টাফ রিপোর্টার :কার্তিক কুমার
রাজশাহীতে বর-কনেসহ বউভাতের অনুষ্ঠান থেকে ফেরার সময় দু’টি নৌকা ডুবে যায়। শুক্রবার (৬ মা’র্চ) সন্ধ্যায় রাজশাহী মহানগরের শ্রীরামপুর এলাকার বিপরীতে পদ্মা নদীতে নৌকাডুবির এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত চারজনের ম’রদেহ উ’দ্ধার করা হয়েছে। এখনও নি’খোঁজ রয়েছেন প্রায় পাঁচজন।
নৌকাডুবির পর বালু তোল ড্রেজার নৌকা বর আসাদুজ্জামান রুমনকে উ’দ্ধার করে। পরে সেখান থেকে তাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। রুমন পদ্মা’র চরের ওপারের থাকা পবা উপজে’লার চরখিদিরপুরের গ্রামের ইনছার আলীর ছেলে।
শনিবার (৭ মা’র্চ) দুপুরে রুমন মহানগরের শ্রীরামপুর এলাকায় আসেন। সেখানে ঘটনার বর্ণনা দিয়ে তিনি বলেন, নদীর ওপার থেকে আসার সময় পথিমধ্যে হঠাৎ ইঞ্জিন বন্ধ হয়ে যায়। এতে আতঙ্কিত হয়ে ওই নৌকায় থাকা ছেলে-মেয়ে কা’ন্নাকাটি শুরু করে। তখন তার ভাই নৌকা থেকে লাফ দেয়। লাফ দিলে নৌকা হেলে যায়। ফলে পানি এসে নৌকা ডুবে যায়।
রুমন বলেন, একটি বালু তোলার ড্রেজার নৌকা এসে আমাদের উ’দ্ধার করে। আমা’র স্ত্রী’ আমা’র সঙ্গে ছিল। কিন্তু সে তার বোনের সঙ্গে নৌকার পেছনের দিকে ছিল। আমি আমা’র বন্ধু শামীমের সঙ্গে ছিলাম। তাকে এখনো খুঁজে পাওয়া যায়নি।
তিনি আরও বলেন, আমা’র সঙ্গে কেউ ছিল না তখন। যারা মেয়ে (কনে) আনতে যায়, ওই ক’জনই ওপারে মেয়েকে আনতে গিয়েছিল। আম’রাও ডুবে গিয়েছিলাম। যে নৌকাটি আমাকে উ’দ্ধার করেছিল, সেটি আরও তিনজনকে উ’দ্ধার করে। নৌকায় থাকা লোকজন বলেছিল, আম’রা তোমাদের বাঁ’চাই, এখানে আরও চারটি নৌকা আছে। নৌকাগুলো সেখানে খোঁজাখুজি করছিল। পরে সেখান থেকে আমাদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।
এদিকে নি’খোঁজদের খুঁজতে রাজশাহীর পদ্মা নদীতে উ’দ্ধার অ’ভিযান পরিচালনা করছে চারটি উ’দ্ধারকারী ইউনিট। এরমধ্যে রাজশাহী সদর ফয়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের একটি রংপুর থেকে আসা একটি, বিআইডব্লিউটির একটি এবং বিজিবির একটি ইউনিট নদীতে কাজ করছে।
এর আগে শুক্রবার সন্ধ্যায় ঘটনার পর থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত নি’খোঁজদের উ’দ্ধারে অ’ভিযান চলে। পরে পদ্মা নদীতে শনিবার সকাল সাড়ে ৭টা থেকে আবারও উ’দ্ধার অ’ভিযান শুরু হয়।
শনিবার দুপুরে রতন আলী (২২) নামে এক যুবকের ম’রদেহ উ’দ্ধার করা হয়। তিনি মহানগরের রাজপাড়া থা*নার বসুয়া এলাকার গাজী শেখের ছেলে। এছাড়া তিনি নি’খোঁজ কনের দুলাভাই।
শুক্রবার রাতে উ’দ্ধারের পর তার ছয় বছরের মেয়ে ম’রিয়ম খাতুনকে হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক মৃ’ত ঘোষণা করেন।
এর আগে শনিবার দুপুর সোয়া ১টার দিকে মহানগরের শ্রীরামপুর ঘাট সংলগ্ন পদ্মা নদী থেকে এখলাস হোসেন (২২) নামে আরও একজনের ম’রদেহ উ’দ্ধার করা হয়।
তিনি পবা উপজে’লার কাঁঠালবাড়িয়া গ্রামের আসলাম হোসেনের ছেলে এবং নৌকাডুবিতে নি’খোঁজ কনে সুইটি খাতুন পূর্ণিমা’র চাচাতো ভাই। এছাড়া এখলাস পেশায় কাঠমিস্ত্রি ছিলেন। এছাড়া শনিবার দুপুরে দুর্ঘ’টনার কবলে পড়ে ডুবে যাওয়া নৌকাটিও উ’দ্ধার করা হয়েছে।
শনিবার সকালে রাজশাহী শহর থেকে প্রায় ২৫ কিলোমিটার দূরে পদ্মা নদীর চারঘাট অংশের ইউসুফপুর থেকে মনি বেগম (৪৫) নামে আরও এক নারীর ম’রদেহ উ’দ্ধার করা হয়। তিনি নি’খোঁজ কনের চাচি। এ নিয়ে পদ্মায় নৌকাডুবির ঘটনায় মৃ’তের সংখ্যা দাঁড়ালো চারজনে। এখনও নি’খোঁজ রয়েছেন প্রায় পাঁচজন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ধরনের আরো সংবাদ
© নাগরিক এক্সপ্রেস । সর্বসত্ব সংরক্ষিত। নাগরিক এক্সপ্রেস এর প্রকাশিত প্রচলিত কোনো সংবাদ তথ্য ছবি আলোকচিত্র রেখা চিত্র ভিডিও চিত্র অডিও কনটেস্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামত এর জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ণ লেখক এর
Theme Customized By Theme Park BD