1. admin@nagorikexpress.com : নাগরিক এক্সপ্রেস : Nagorik Express প্রশাসন
  2. rd278591@gmail.com : Rahul Rahulrd : Rahul Rahulrd
মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ১২:৩৪ অপরাহ্ন
নোটিশ :
নাগরিক এক্সপ্রেস পত্রিকার সাংবাদিক হিসাবে কাজ করতে হলে আজই আমাদের অনলাইন পেইজে অথবা ই-মেইল নাম্বারে অথবা আমাদের মোবাইল নাম্বারে যোগাযোগ করুন প্রতিটি জেলার শহরে সাংবাদিক নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে।   নাগরিক এক্সপ্রেস এর বিভিন্ন জেলার সাংবাদিকদের নাম এবং পদবী। নাম: তানজির আহম্মেদ সানি রিপোর্টার: ঢাকা জেলা নাম: নোমান খান রিপোর্টার: মোহাম্মদপুর ঢাকা। নাম: ইসমাইল হোসেন রিপোর্টার:রাজশাহী জেলা নাম : মেজবাহ উদ্দিন রিফাত রিপোর্টার : মোহাম্মদপুর ঢাকা মোঃ জাহাঙ্গীর রাজীব রাজু রিপোর্টার - ভেড়ামারা, কুষ্টিয়া। নাম: প্রান্ত মৃধা রিপোর্টার: নরসিংদী নামঃসাকিব হাসান প্রিয়াস প্রতিনিধিঃ কৃষি ইনস্টিটিউট, ব্রাহ্মণবাড়িয়া মকবুল হোসেন প্রতিনিধিঃ মিঠামইন,কিশোরগঞ্জ নাম : খালিদ সাইফুল চঞ্চল রিপোর্টার : কুষ্টিয়া জেলা নাম: এইচ এম জুয়েল রিপোর্টার: মাগুরা সদর মাগুরা জেলা নাম: আজাদ নাদভী রিপোর্টার: মুন্সিগঞ্জ জেলা নাম: ইসমাইল হোসেন রিপোর্টার:রাজশাহী জেলা নাম:মোঃইনজামামুল হক জুয়েল রিপোর্টার:সাতক্ষীরা জেলা নামঃ ফৌজি হাসান খান রিকু রিপোর্টারঃ লৌহজং উপজেলা নামঃ মুশফাকুর রহমান সিলেট জেলা প্রতিনিধি নামঃইমতিয়াজ উদ্দিন কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি    
শিরোনাম :
স্বামীর হাতে খুন হয়েছেন নায়িকা শিমু রিপন’রা মাঠে থাকলে জিতে যায় নৌকা, নারায়ণগঞ্জে আইভীর হ্যাটট্রিক জয়। রামেক হাসপাতালে আবারও বেড়েছে শনাক্তর হার, মৃত্যু ১ রামেকে গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় ১ জনের মৃত্যু ১২ বছরের নিচের শিক্ষার্থীদের পরবর্তীতে পরিস্থিতি অনুযায়ী ব্যবস্থা; শিক্ষা মন্ত্রী স্বাস্থ্যখাতের সাফল্যে বাংলাদেশকে রোল মডেলে পরিণত করেছে সরকার রাতভর চলছে অবধৈ পুকুর খননের মহোৎসব আশুলিয়ায় নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানকে গণসংবর্ধনা বিধিনিষেধ না মানলে দেওয়া হবে লকডাউন স্বাস্থ্যমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইয়ুথ ভলান্টিয়ার এ্যাওয়ার্ড ২০২০ অর্জনে মইনীয়া যুব ফোরাম সোনারগাঁও শাখাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। 

যশোর সদরে নৌকার মাঝি হতে চায় সাবেক এমপি রাজু’র সহধর্মিণী ফিরোজা

  • আপডেট সময় : সোমবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১৮৭ সময় দেখা

 

স্বাধীন মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, যশোর থেকেঃ-

আসন্ন যশোর সদর উপজেলা উপনির্বাচনে নৌকার প্রার্থী হতে চান প্রয়াত মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক আলী রেজা রাজু’র সহধর্মিণী ও যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মিসেস ফিরোজা রেজা ।উন্নয়নে ধারা অব্যাহত রাখতে নৌকার প্রার্থী হতে চান তিনি।

 

ফিরোজা রেজা সাবেক সংসদ সদস্য, সাবেক যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য, সাবেক সফল পৌর চেয়ারম্যান, সাবেক যশোর সদর উপজেলা চেয়ারম্যান, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও সাবেক কমিশনার আলী রেজা রাজু’র স্ত্রী। তিনি যশোর জেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী সদস্য,ডাঃ আব্দুর রাজ্জাক মিউনিসিপ্যাল কলেজের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য, খাজা গরীবে নেওয়াজ মহিলা এতিমখানার প্রতিষ্ঠাসভাপতি, রোটারি ক্লাব সহ বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক,শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এর সাথে জড়িত।

আলী রেজা রাজু’র রাজনৈতিক ইতিহাসঃ

গণমানুষের নেতা হিসেবে আলী রেজা রাজু মহান মুক্তিযুদ্ধে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আহবানে সাড়া দিয়ে যশোর অঞ্চলে মুক্তিযুদ্ধাদের সংগঠন করা,তাদের ট্রেনিং করানো, অস্ত্র গোলাবারুদ সরবরাহ করে, খাবার সরবরাহ করে এই অঞ্চলে মুক্তিযুদ্ধে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন।তার আপন ছোট ভাই রাজেক আহমেদ যশোর জেলা মুক্তিযুদ্ধা সংসদ এর সর্বশেষ নির্বাচিত জেলা কমান্ডার। তিনি ১৯৭৩ সালে বঙ্গবন্ধু স্বাক্ষরিত যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য নির্বাচিত হন।১৯৯৬ তিনি বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের প্রতিস্ঠাতা সহ-সভাপতির দায়িত্ব পান আমৃত্যু সেই দায়িত্ব পালন করেছেন।২০০২-২০০৪ সাল পর্যন্ত তিনি যশোর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক (১) এর দায়িত্ব পালন করেন।২০০৪ সালে বিদেশে অবস্থান করা অবস্থান যশোর জেলা আওয়ামী লীগের কাউন্সিল অধিবেশনে সর্বোচ্চ ভোট পেয়ে যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হন এবং ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারী মাস পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ২০০৬ সাল হতে ২০১৬ সালের ১৫ জুলাই আমৃত্যু বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির অন্যতম সদস্যর দায়িত্ব পালন করেছেন।

মিসেস ফিরোজা রেজার প্রয়াত স্বামী আলী রেজা রাজু ১৯৭৩ ও ১৯৭৮ সালে যশোর পৌরসভার কমিশনার নির্বাচিত হন।১৯৮৮ সালে তিনি যশোর সদর উপজেলার কাশিমপুর ইউনিয়ন এর চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।পরের বছর তিনি যশোর সদর উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।১৯৯২ সালে তিনি যশোর পৌরসভার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।তিনি ১৯৯৬ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে নৌকা প্রতীক নিয়ে ৮৭(যশোর -৩) আসনের সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।এর পর ২০০১ সালের জাতীয় নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে পরাজিত হন ও ২০০৮ সালের জাতীয় সালে জাতীয় নির্বাচনে নৌকা প্রতিকে মনোনয়ন পেয়ে শারীরিক অসুস্থতার কারণে নির্বাচন করতে পারেন নাই।

 

তার কনিষ্ঠ জামাতা নায়ক ফেরদৌস আহমেদ বর্তমানে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ,সাংস্কৃতিক উপকমিটির সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন।

 

জনকল্যাণমূলক কাজে আলী রেজা রাজু’র সক্রিয় অংশগ্রহণঃ

তিনি ডাঃ আব্দুর রাজ্জাক মিউনিসিপ্যাল কলেজ, রুপদিয়া শহীদ স্মৃতি কলেজ, রদ্রপুর মুক্তিযুদ্ধা কলেজ, সলুয়া আর্দশ কলেজ, মুন্সি বেলায়েত আলী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ঘোপ সেন্ট্রাল রোড জামে মসজিদ, শানতলা হেফজ খানা, এতিমখানা সহ অসংখ্য সামাজিক প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা করেছেন নিজ উদ্যোগে।এমপি হিসেবে তিনি রেকর্ড ১১৪ অধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিষ্ঠার সাথে সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।যশোর সদর উপজেলার রাস্তাঘাট উন্নয়ন কাজে আলী রেজা রাজু অংশগ্রহণ করেছিলেন।উপজেলার ১৫টি ইউনিয়নে পারিবারিক স্বাস্থ্য সেবা ক্লিনিক প্রতিষ্ঠা ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখেন করেন।তার আমলে যশোর সদর উপজেলার নিরাপত্তায় ১৭ টি পুলিশ ফাঁড়ী/ক্যাম্প স্থাপিত হয়।

 

রাজনৈতিক কর্মকান্ডে মিসেস ফিরোজা রেজার সক্রিয়তাঃ

তিনি ১৯৭১ সালে মুক্তিযোদ্ধাদের খাবার অস্ত্র পৌঁছে দিতেন। ১৯৯৭ হতে ২০১৫ পর্যন্ত তিনি যশোর জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ কে সংগঠিত করতে জেলার বিভিন্ন প্রান্তে সফরে গিয়েছেন, প্রোগ্রাম করেছেন এবং তার উপর অর্পিত দাযিত্ব পালন করেন।দলের প্রয়োজনে সব সময় পাশে থেকেছেন তিনি।২০১৬ সালে তার স্বামীর মৃত্যুর পর থেকে তিনি উপজেলার প্রতি গ্রামে,শহরে, পাড়ায়-মহল্লায় ঘুরে ঘুরে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, কৃষকলীগ,শ্রমিক লীগ, ছাত্রলীগ সহ সকল সহযোগী ও অংগসংগঠন গুলি সংগঠিত করে চলেছেন। তিনি ২০১৯ সালের গঠিত যশোর জেলা আওয়ামী লীগের কমিটিতে অন্যতম সদস্য নির্বাচিত হন। ২০২০-২০২১ সালের ভয়াবহ করোনা মহামারীতে তিনি নিজস্ব তহবিল থেকে যশোর সদর উপজেলা বাসীর জন্য কয়েক হাজার পরিবার কে ত্রাণ (খাদ্য) সহায়তা, রান্না খাবার বিতরণ কর্মসূচি, অনেক কে চিকিৎসা ও ঔষধ সহায়তা এবং প্রতিষ্ঠানে বিনামূল্য অক্সিজেন সিলিন্ডার সহায়তা প্রদান করেছেন। বর্তমানে যশোর সদর উপজেলায় বিভিন্ন কর্মসূচি বিদ্যমান রয়েছে।

 

সম্ভাব্য উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী মিসেস ফিরোজা রেজা বলেন, আমার স্বামী জনস্বার্থে ও জনকল্যাণে সারা জীবন

কাজ করে গেছেন। বর্তমানে আমি যশোর সদর উপজেলার জনগণের চাওয়া ও দলীয় নেতাকর্মীদের প্রত্যাশা অনুযায়ী আগামী যশোর সদর উপজেলা উপনির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে অংশগ্রহণ করতে চাই। দল আমাকে নৌকা মার্কা দিলে আমি বিপুল ভোটে নির্বাচিত হব (ইনশাআল্লাহ)।আমি যশোর সদর উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে যশোর সদর উপজেলাকে মডেল উপজেলা হিসাবে গড়ে তুলার লক্ষ্যে কাজ করব। অসহায় মানুষের পাশে থেকে তাদের কল্যাণের জন্য কাজ করব।যুব সমাজকে সঙ্গে নিয়ে মাদক

দুর্নীতিসহ সব অন্যায়ের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলব।

 

তিনি আরো বলেন, আমার ও আমার পরিবারের সবাই আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত।আমার স্বামী প্রয়াত আলী রেজা রাজু ছিলেন আওয়ামী লীগের একজন নিবেদিত প্রাণ।নেত্রী অবশ্যই তার প্রায়ত স্বামী ও তার পরিবারের দলের প্রতি ভালোবাসা ও দলীয় কর্মকান্ডের অবশ্যই মূল্যায়ন করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ধরনের আরো সংবাদ
© নাগরিক এক্সপ্রেস । সর্বসত্ব সংরক্ষিত। নাগরিক এক্সপ্রেস এর প্রকাশিত প্রচলিত কোনো সংবাদ তথ্য ছবি আলোকচিত্র রেখা চিত্র ভিডিও চিত্র অডিও কনটেস্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামত এর জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ণ লেখক এর
Theme Customized By Theme Park BD
error: Content is protected !!