1. admin@nagorikexpress.com : নাগরিক এক্সপ্রেস : Nagorik Express প্রশাসন
বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:০৪ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
শেখ রাসেল পরিষদ এর নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক হলেন আল-মামুনুর রশিদ। লৌহজংয়ে নৌকা প্রতীক থেকে বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় চার চেয়ারম্যান নির্বাচিত লৌহজংয়ে যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা ফজলুল হক মণির ৮৩ তম জন্মবার্ষিকী পালিত যশোরে শেখ মণির জন্মদিনে দোয়া-মিলাদ অনুষ্ঠিত জাতীয় এসএমই পণ্য মেলা-২০২১  উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মতলবে পুস্তক প্রকাশক বিক্রেতা সমিতির বর্ধিত সভা লৌহজংয়ে নৌকার প্রার্থীর সমর্থকদের হামলায় স্বতন্ত্রপ্রার্থীর ছেলে আহত মতলবে তিন কেজি গাঁজাসহ দুই যুবক আটক মতলব মুক্ত দিবস পালিত ৫ম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের পুনঃ তফসিল প্রসঙ্গে।

রাস্ট্রের অতন্ত্র অকুতোভয় যোদ্ধা পুলিশ।

  • আপডেট সময় : বুধবার, ২২ এপ্রিল, ২০২০
  • ২৬৭ সময় দেখা

সোহাগ.ভান্ডারী (শ্রীপুর) গাজীপুর থেকে ঃ

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আহবানে ১৯৭১ সালে ২৫ মার্চে মুক্তিযুদ্ধের প্রথম প্রহরে রাজারবাগ পুলিশ লাইনস থেকে প্রথম অকুতোভয় বাংলাদেশ পুলিশ সদস্যরা দেশমাতৃকার টানে পাকিস্তানী বাহিনীর অত্যাধুনিক অস্ত্রের বিরুদ্ধে ২য় বিশ্বযুদ্ধে ব্যবহৃত বাতিল ৩০৩ রাইফেল দিয়েই তীব্র প্রতিরোধ গড়ে তোলেন। রুখে দাড়ান অন্যায়ের বিরুদ্ধে নি:শঙ্ক চিত্তে।

সেই থেকে দেশের সকল সংকট ও দুর্যোগে বাংলাদেশ পুলিশ কাজ করছে নিরলস ভাবে। মানবিক কাজে এগিয়ে আসা জনগণের সঙ্গে দূরত্ব হ্রাস ও আস্থার সম্পর্ক সৃষ্টিতে কাজ করছে পুলিশ। ১৯৪৭ সালে দেশ ভাগের পর বাংলাদেশের পুলিশের নাম প্রথমে ইষ্ট বেঙ্গল পুলিশ রাখা হয়। পরবর্তীতে এটি পরিবর্তিত হয়ে ইষ্ট পাকিস্থান পুলিশ নাম ধারন করে। স্বাধীনতা অর্জন করার পর এই বাহিনীটির নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় ‘বাংলাদেশ পুলিশ।তখন থেকে বাংলাদেশ পুলিশের যাত্রা শুরু। কিছুদিন আগেও যাঁদের দেখা গিয়েছিল পরিযায়ী অভুক্ত শ্রমিকদের ওপর লাঠি চালাতে, তাঁরাই এখন বিভিন্ন জায়গায় অভিবাবকের ভূমিকায়। রোগীদের বাঁচাতে রক্ত দিচ্ছেন, খাবার পৌঁছে দিচ্ছেন গরিবের ঘরে,গর্ভবতীদের নিজেদের গাড়ি করে পৌঁছে দিচ্ছেন হাসপাতালে, ভবঘুরে, ফুটপাথবাসীদের কাছে খাবার পৌঁছে দিচ্ছেন, গরিব ও পরিয়ায়ী শ্রমিকদের বাড়িতে গিয়ে দিয়ে আসছেন চাল, ডাল, এমনকী বানর ও কুকুরদেরও খাবার দিয়ে পশুপ্রেমীদের ধন্যবাদের পাত্র হচ্ছেন শ্রীপুর থানা পুলিশ।

এই মূহুর্তে কোভিট-১৯ করোনা ভাইরাস নিয়ে আতঙ্কিত সারা বিশ্বের মানুষ।ঠিক এমন সময় সব ভয় অতিক্রম করে সার্বক্ষণিক সেবা দিয়ে যাচ্ছেন বাংলাদেশ পুলিশের সদস্যরা। প্রয়োজনে ঝুঁকিও নিতে হচ্ছে তাদের। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণকারী লোকজনের দাফনের দায়িত্বটুকু পড়েছে পুলিশের কাঁধে। শুধু তা-ই নয়, বিদেশফেরত লোকজনের হাতে কোয়ারেন্টিনের তারিখসমৃদ্ধ সিল বসানোর ঝুঁকি নিয়েছিল পুলিশ। দেশে সৃষ্ট এ অচলাবস্থায় মানুষের কাছে সেবা পৌঁছে দেওয়ার পাশাপাশি মানবিক কাজেও এগিয়ে আসছেন এ বাহিনীর সদস্যরা। অন্যদিকে পুলিশের এক হিসাব বলছে, এখন পর্যন্ত সারাদেশে প্রায় ৭০ জনের মতো পুলিশ সদস্য কোভিট-১৯ এ আক্রান্ত হয়েছেন।

এমনই কঠিন সময়ে গাজীপুরে শ্রীপুরে অনেক এলাকায় অসচেতন লোক লকডাউনের তোয়াক্কা না করে বেরিয়ে পড়ছেন, তাঁদের সচেতন করার জন্য শ্রীপুর থানা পুলিশের পক্ষ থেকে জনগনকে বিভিন্নভাবে সতর্ক করা হচ্ছে। পাশাপাশি হ্যান্ড মাইকে, লিফলেট বিতরণ করে, মানুষকে উদ্বুদ্ধ করতে বিনামূল্যে সেনিটাইজার, মাস্ক, ও হ্যান্ডগ্লভস বিতরণ করে প্রচারনামূলক কাজ করছে শ্রীপুর থানা পুলিশ। যা সর্বমহলে ব্যাপক প্রশংসিত হয়। বাংলাদেশ পুলিশে গৌরবোজ্জল ইতিহাস ফিরিয়ে আনতে দিনরাত কাজ করছে শ্রীপুর থানা পুলিশ। এ যেন বদলে যাওয়া ভিন্ন পুলিশের এক গল্প ।সঙ্কট সময়ে শ্রীপুরে পুলিশ একেবারে বদলে গেছে। ‘জনতার পুলিশ’ এই মন্ত্রকে সঙ্গে নিয়ে সেবামূলক কাজে ঝাঁপিয়েছে পরেছে তারা। আর তার ফলে দেশ দেখতে পাচ্ছে পোষাকধারীদের অন্য একটা দিক, যা আগে ঢাকা পড়ে যেত, লাঠি, গ্যাস, গুলির প্রাবল্যে।

এবিষয়ে শ্রীপুর উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক জনাব মহিদুল আলম চঞ্চল বলেন, পুলিশের সৃষ্টি হয়েছিল আতঙ্ক-ভীতি সৃষ্টির জন্য; দমানোর অস্ত্র হিসেবে, যা ছিল ইংরেজ শাসকদের সহযোগিতার ‘লাঠিয়াল বাহিনী’। ১৮৬১ সালের সেই পুরোনো আইন দিয়ে চলছে দেশের পুলিশ। সেই থেকে এ বাহিনী সব সময় নেতিবাচকভাবে উপস্থাপিত হয়ে আসছে। নাটক-সিনেমায় পুলিশকে ‘জনবিরোধী’ হিসেবে উপস্থাপন করা হয়। এর জন্য বাংলাদেশের আর্থসামাজিক প্রেক্ষাপটও দায়ী। আমরা দেখেছি, ছোট বাচ্চাদের ভয় দেখাতে পুলিশের ভয়ংকর রূপ হাজির করেন মায়েরা। যা থেকে বেরিয়ে আসা এখন সময়ের দাবি।

শ্রীপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ লিয়াকত আলী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আহবানে ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীই সর্ব প্রথম জীবন বাজী রেখে ঝাপিয়ের পরে ছিলো দখলদার ও অত্যাচারিত পাক হানাদার বাহিনীর উপর।আর এবার ২০২০ সাল সেই বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহবানে সারা দিয়ে আসুন আমরা ঘরে থাকি। দৈহিক দূরত্ব বজায় রাখি । তবেই হয়তো মুক্তিযুদ্ধের মত এবারও আমরা মহামারির এই কভিট-১৯ করোনা ভাইরাসকে জয় করতে পারবো ইনশাল্লাহ ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ধরনের আরো সংবাদ
© নাগরিক এক্সপ্রেস । সর্বসত্ব সংরক্ষিত। নাগরিক এক্সপ্রেস এর প্রকাশিত প্রচলিত কোনো সংবাদ তথ্য ছবি আলোকচিত্র রেখা চিত্র ভিডিও চিত্র অডিও কনটেস্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামত এর জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ণ লেখক এর
Theme Customized By Theme Park BD
error: Content is protected !!