1. admin@nagorikexpress.com : নাগরিক এক্সপ্রেস : Nagorik Express প্রশাসন
শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ০১:২৬ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
চলে গেলেন জাতীয় অধ্যাপক ও মতলবের কৃতি সন্তান ড. রফিকুল ইসলাম ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সভাপতিকে অব্যাহতি মতলব উত্তর ও দক্ষিণে ইউপি নির্বাচনে ১১ নৌকা প্রার্থীর জয় বাসে হাফ ভাড়া শুধুমাত্র ঢাকার মধ্যে : শিক্ষার্থীদের যেসব শর্ত মানতে হবে ইউপি নির্বাচন: ভাঙ্গায় ১২ জয়ীর ১১ জনই নিক্সন চৌধুরীর অনুসারী। গফরগাঁওয়ে দুই ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী দুই প্রার্থীর মধ্যে মত বিনিময়। “মনোহরদীতে হাফ পাশের দাবীতে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন” লৌহজংয়ে সীমানা বিরোধকে কেন্দ্র করে প্রাণনাশের হুমকি ডামুড্যায় উপজেলায় ২৯৭ টি মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা ইউপি নির্বাচনে সদস্য প্রার্থী আরিফ ছৈয়াল জনগণের কল্লাণে কাজ করতে চান 

“হবিগঞ্জে করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলেছে “

  • আপডেট সময় : রবিবার, ২৬ এপ্রিল, ২০২০
  • ৭৭ সময় দেখা

মোঃ ফখরুদ্দিন মোবারকঃ
হবিগঞ্জ জেলায় প্রতি ঘন্টায় ১ জনেরও বেশি করোনা রোগী শনাক্ত হচ্ছে। গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্টে এ তথ্যই উঠে আসে। শনিবার ২৪ ঘন্টায় প্রথমে ৫ জন, পরে ২০ জন, তারপর ১জনসহ মোট ২৬জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।

এর আগে ১৫ দিনে করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছিলেন ২১ জন, ১৫ দিনের সংখ্যা ১ দিনেই অতিক্রম করেছে হবিগঞ্জে।জেলায় শুরু থেকে এ পর্যন্ত সর্বমোট আক্রান্ত ৪৭ জন।

এদিকে সিলেটে অটো রিক্সা চালক হবিগঞ্জের নিজামপুরের এক যুবক করোনার উপসর্গ নিয়ে সিলেট শামসুদ্দিন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যু বরণ করেছেন। তাকে শনিবার রাতে করোনা নীতি মেনে গ্রামের বাড়িতে দাফন করা হয়েছে। জানাযায় সিলেট থেকে আসা ৪জন অংশ গ্রহণ করেন।

এরপরই মৃত্যু বরণ করেন করোনা আক্রান্ত চুনারুঘাটের চা বাগানের ৫ বছরের এক শিশু। দুই দিন আগে তার করোনা শনাক্ত হয়। তাকেও করোনা নীতি মেনে সৎকার করা হচ্ছে।

একদিনে হবিগঞ্জে যে ২৬জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন তাদের মধ্যে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালের ১জন ডাক্তার, ২জন নার্স, ল্যাব টেকনিশিয়ান ২জন, এ্যাম্বুলেন্স চালক ২জন, আয়া ঝাড়ু দার ২জন, সিভিল সার্জন কার্যালয়ের একজন কর্মচারী, জেলা প্রশাসনের ১জন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট, ২জন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট, ১জন নাজির রয়েছেন। তাছাড়া চুনারুঘাট উপজেলার ৪ জনের মধ্যে ১জন ডাক্তার রয়েছেন। বাকীরা লাখাই, মাধবপুর ও হবিগঞ্জ সদর উপজেলার বাসিন্দা।

হবিগঞ্জের যখন এই অবস্থা এরই মধ্যে জেলার হোটেল রেস্তোরা খুলে দেয়ার সিদ্ধান্তে জেলার বেশির ভাগ মানুষ ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। ক্ষোভের মুখে রবিবার দুপুর ১১টার দিকে হোটেল রেস্তোরা খোলা রাখার সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেন জেলা প্রশাসক।

তবে এতো সব আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংবাদের মধ্যেই স্বাভাবিক জীবন যাপন চলছে হবিগঞ্জে। বাজারে ভিড় কমেনি। রাস্তাঘাটেও মানুষের ঝটলা দেখা যায় রবিবার সকাল থেকেই।

এদিকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করোনা রোগীদের গরম পানি ব্যবহারের জন্য কিছু ফ্লাক্স দিয়েছে করোনা রোগীর সেবায় নিয়োজিত “ করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ সচেতন নাগরিক কমিটি” নামে একটি সংগঠন।

কমিটির সদস্য এডভোকেট সৈয়দ সামাউন বখত জানান- করোনা রোগীকে ভিন্ন চোখে দেখা হয়। আমরা করোনা নীতি মেনে তাদের প্রয়োজনীয় মৌলিক চাহিদা পূরনের চেষ্টা করছি। কমিটির আহবায়ক চৌধুরী মিছবাহুল বারী লিটন, সদস্য সচিব চৌধুরী ফরহাদসহ কমিটির নেতৃবৃন্দ সিভিল সার্জন অফিসে করোনা রোগীদের ব্যবহারের জন্য বিভিন্ন সামগ্রী তুলে দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ধরনের আরো সংবাদ
© নাগরিক এক্সপ্রেস । সর্বসত্ব সংরক্ষিত। নাগরিক এক্সপ্রেস এর প্রকাশিত প্রচলিত কোনো সংবাদ তথ্য ছবি আলোকচিত্র রেখা চিত্র ভিডিও চিত্র অডিও কনটেস্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামত এর জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ণ লেখক এর
Theme Customized By Theme Park BD
error: Content is protected !!