1. admin@nagorikexpress.com : admin :
বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০৭:২৬ অপরাহ্ন
নোটিশ :
পরিচালনা পরিষদ: নাগরিক এক্সপ্রেস এর আইডি কার্ড এর মেয়াদ সম্পূর্ণ কোন সাংবাদিক নেই . সকলের আইডি কার্ডের মেয়াদ শেষ। দ্রুত আইডি কার্ড সংগ্রহ করুন জনপ্রিয় পত্রিকা নাগরিক এক্সপ্রেস এর পক্ষ থেকে সবাইকে পরিচালনা পরিষদের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন । বর্তমানে সারা বাংলাদেশে আইডি কার্ড ধারি আমাদের কোন সংবাদ কর্মী নেই যারা আছেন তাদের আইডি কার্ডের মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে তাই উক্ত সাংবাদিকগণ আমাদের প্রতিষ্ঠানে কর্মরত আছেন বলে বিবেচিত হবে না। যদি কারো আইডি কার্ডের প্রয়োজন হয় তাহলে খুব শীঘ্রই আমাদের সাথে যোগাযোগ করবেন। আপনি কি সাংবাদিক হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে চান? আপনি কি সমাজের সমস্ত অন্যায় অপরাধ দুর্নীতির বিরুদ্ধে লিখতে চান? তাহলে আজই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন. নিরপেক্ষ সংবাদ এর সন্ধানে। আপনার এলাকায় ঘটে যাওয়া যেকোনো অনিয়ম দুর্নীতি আমাদের কাছে ইমেইলের মাধ্যমে পাঠাতে পারেন অথবা নিচে দেওয়া আমাদের নাম্বারে যোগাযোগ করতে পারেন সারাদেশে সাংবাদিক নিয়োগ চলছে সাংবাদিক হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে আজি আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন.
শিরোনাম :
ভাঙ্গায় কলম কিনতে গিয়ে অজ্ঞাত গাড়ির চাপায় প্রান গেল স্কুল ছাত্রের ভাঙ্গায় উপজেলা নির্বাচনে দোয়াত- কলম প্রতীকের প্রার্থী কাওছার ভূঁইয়ার উঠান বৈঠক ভাঙ্গা থেকে যশোর পর্যন্ত রেলপথ চালু হবে অক্টোবরে-রেল মন্ত্রী জিল্লুল হাকিম এমপি ইলিয়াস আহমেদ চৌধুরীর ৩৩ তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ স্কুলের টয়লেটে রুদ্ধশ্বাস ৬ ঘণ্টা ফরিদগঞ্জে পুলিশ পরিচয়ে ঘরে প্রবেশ করে অস্ত্র ঠেঁকিয়ে ডাকাতি এসো বই পড়ি আলোকিত হই স্মার্ট সমৃদ্ধ বাংলাদেশের অভীষ্ট লক্ষ্য অর্জনে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষার মর্যাদা বৃদ্ধি ও পেশাগত সমস্যাসমাধানে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত। ভাঙ্গায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে নকল আইসক্রিম কারখানা সিলগালাঃ ১ লাখ টাকা জরিমানা মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের উপর সন্ত্রাসী হামলার অভিযোগ ঃ নারী সদস্য আহত-

চাঁদপুর জেলা কারাগারের ও বাবুরহাট বিসিকের বর্জ্য যাচ্ছে ডাকাতিয়া নদীতে

  • আপডেট সময় : সোমবার, ২১ নভেম্বর, ২০২২
  • ৮৫ বার পঠিত

মোঃসিয়াম,স্টাফ রিপোর্টার : চাঁদপুর জেলা কারাগারের ও বাবুরহাট বিসিকে প্রতিদিন শতাধিক কারখানার রাসায়নিক বর্জ্য জমা হয়।আর সেই বর্জ্য ড্রেনের ও খালের মাধ্যমে যাচ্ছে ডাকাতিয়া নদীতে ।এতে করে দূষিত হচ্ছে নদীর পানি । মারা যাচ্ছে নদীর মাছ । নষ্ট হচ্ছে পরিবেশ ।

২০ নভেম্বর চাঁদপুর জেলা কারাগারের সম্মুখে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, চাঁদপুর কারাগারের ভিতর থেকে একটি পুল এর মাধ্যমে এ বর্জ্য এসে পড়ে শাহতলী ও হামানকর্দ্দি পাশদিয়ে বয়ে যাওয়া ডাকাতীয়া নদীর সংযোগস্থল খালে।

আর এ খাল দিয়ে বর্জ্য যায় নদীতে। আর কারা কর্তৃপক্ষ পরিবেশের দিকে নজর না দিয়ে অনায়াসে প্রতিদিন খালের মাধ্যমে ডাকাতীয়া নদীতে বর্জ্য ফেলছে। এতে নদীর পানি দূষিত হচ্ছে ও মৎস্য সম্পদ ধ্বংস হচ্ছে। প্রতিদিন নদীর পানি দূষনের ফলে মারা যাচ্ছে নানা প্রজাতির মাছ।

একইভাবে বাবুরহাট বিসিকের রাসায়নিক বর্জ্য পদার্থ খালের মাধ্যমে ডাকাতীয়া নদীতে ফেলছে। বাবুরহাট বিসিক কর্তৃপক্ষ কোন কিছু বা পরিবেশর তোয়াক্কা না করে খালের মাধ্যমে বর্জ্য নদীতে ফেলছে।

প্রতিনিয়িত এসব ময়লা-বর্জ্যে দূষিত হচ্ছে শাহতলী ও হামানকর্দ্দি গ্রামে পাশে দিয়ে বয়ে যাওয়া ডাকাতীয়া নদীর পানি। অথচ দূষণ ঠেকানোর কোনো উদ্যোগ নেই কারও। কেউ কোনো কিছু বলছেও না।

কারাগার ও বাবুরহাট বিসিক কর্তৃপক্ষ যেন নদীতে ময়লা আবর্জনা ফেলে স্বস্তির নিশ্বাস ফেলছে।

কারাগারের এসব ময়লা-আবর্জনায় রয়েছে পলিথিনজাতীয় অপচনশীল দ্রব্য, যা শত বছরেও নষ্ট হবে না। কারাগারের কয়েদীদের বর্জ্য, কারাগারের আরো অনেক বর্জ্য।

অনুরুপভাবে বাবুরহাট বিসিকের বর্জ্যের মধ্যে রয়েছে রাসায়নিক ও কেমিক্যাল জাতীয় পর্দাথ, শ্রমিকদের বর্জ্যসহ আরো বিভিন্ন ধরনের বর্জ্য পদার্থ।

এতে, একদিকে যেমন প্রাকৃতিক পরিবেশ হুমকির সম্মুখীন হচ্ছে, অপরদিকে ডাকাতীয়া নদীর নাব্যতা হ্রাসে বিশেষ ভূমিকা রাখছে। সেই সঙ্গে মাছ ও জলজ জীববৈচিত্র্য ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। মারা যাচ্ছে বহু প্রজাতির মাছ ও মৎস শ্রেনিভুক্তজলজ প্রাণী।

এ বিষয়ে শাহতলী রাস্তার মাথা কারাগার এলাকা, শাহতলী ও হামানকর্দ্দি এলাকার কয়েকজন দৈনিক চাঁদপুর খবর পত্রিকাকে জানান, আমরা আগে এ খালের পানি রান্না, গোসল করাসহ দৈনন্দিন বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করতে পেরছি। কিন্তু বর্তমানে এ খাল দিয়ে চাঁদপুর জেলা কারাগার ও বাবুরহাট বিসিকের বর্জ্য পদার্থ শাহতলী ও হামানকর্দ্দি এলাকায় পাশবর্তী ডাকাতীয়া নদীতে ফেলা হচ্ছে।

এতে নদীর পানি বিষাক্ত হয়ে যাচ্ছে। মারা যাচ্ছে মাছ সহ বিভিন্ন মৎস্য শ্রেনিভুক্ত বিভিন্ন জলজ প্রানী। জনগন নদীর পানি ব্যবহার করে বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। তাই আমরা এ ডাকাতীয়া নদীর পানি দূষন থেকে রক্ষা করতে চাঁদপুর পরিবেশ বিভাগ, জেলা প্রশাসক ও পরিবেশ অধিদপ্তরের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

এ ব্যাপারে চাঁদপুর পরিবেশ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালকের মোবাইল নাম্বারে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও ফোন রিসিভ করেনি । তাই বক্তব্য পাওয়া যায়নি ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© নাগরিক এক্সপ্রেস । সর্বসত্ব সংরক্ষিত। নাগরিক এক্সপ্রেস এর প্রকাশিত প্রচলিত কোনো সংবাদ তথ্য ছবি আলোকচিত্র রেখা চিত্র ভিডিও চিত্র অডিও কনটেস্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামত এর জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ণ লেখক এর
Theme Customized By Shakil IT Park