1. admin@nagorikexpress.com : admin :
বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০৭:১৭ অপরাহ্ন
নোটিশ :
পরিচালনা পরিষদ: নাগরিক এক্সপ্রেস এর আইডি কার্ড এর মেয়াদ সম্পূর্ণ কোন সাংবাদিক নেই . সকলের আইডি কার্ডের মেয়াদ শেষ। দ্রুত আইডি কার্ড সংগ্রহ করুন জনপ্রিয় পত্রিকা নাগরিক এক্সপ্রেস এর পক্ষ থেকে সবাইকে পরিচালনা পরিষদের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন । বর্তমানে সারা বাংলাদেশে আইডি কার্ড ধারি আমাদের কোন সংবাদ কর্মী নেই যারা আছেন তাদের আইডি কার্ডের মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে তাই উক্ত সাংবাদিকগণ আমাদের প্রতিষ্ঠানে কর্মরত আছেন বলে বিবেচিত হবে না। যদি কারো আইডি কার্ডের প্রয়োজন হয় তাহলে খুব শীঘ্রই আমাদের সাথে যোগাযোগ করবেন। আপনি কি সাংবাদিক হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে চান? আপনি কি সমাজের সমস্ত অন্যায় অপরাধ দুর্নীতির বিরুদ্ধে লিখতে চান? তাহলে আজই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন. নিরপেক্ষ সংবাদ এর সন্ধানে। আপনার এলাকায় ঘটে যাওয়া যেকোনো অনিয়ম দুর্নীতি আমাদের কাছে ইমেইলের মাধ্যমে পাঠাতে পারেন অথবা নিচে দেওয়া আমাদের নাম্বারে যোগাযোগ করতে পারেন সারাদেশে সাংবাদিক নিয়োগ চলছে সাংবাদিক হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে আজি আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন.
শিরোনাম :
ভাঙ্গায় কলম কিনতে গিয়ে অজ্ঞাত গাড়ির চাপায় প্রান গেল স্কুল ছাত্রের ভাঙ্গায় উপজেলা নির্বাচনে দোয়াত- কলম প্রতীকের প্রার্থী কাওছার ভূঁইয়ার উঠান বৈঠক ভাঙ্গা থেকে যশোর পর্যন্ত রেলপথ চালু হবে অক্টোবরে-রেল মন্ত্রী জিল্লুল হাকিম এমপি ইলিয়াস আহমেদ চৌধুরীর ৩৩ তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ স্কুলের টয়লেটে রুদ্ধশ্বাস ৬ ঘণ্টা ফরিদগঞ্জে পুলিশ পরিচয়ে ঘরে প্রবেশ করে অস্ত্র ঠেঁকিয়ে ডাকাতি এসো বই পড়ি আলোকিত হই স্মার্ট সমৃদ্ধ বাংলাদেশের অভীষ্ট লক্ষ্য অর্জনে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষার মর্যাদা বৃদ্ধি ও পেশাগত সমস্যাসমাধানে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত। ভাঙ্গায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে নকল আইসক্রিম কারখানা সিলগালাঃ ১ লাখ টাকা জরিমানা মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের উপর সন্ত্রাসী হামলার অভিযোগ ঃ নারী সদস্য আহত-

সৌদি আরবে ঝিনাইদহের গৃহবধুর মৃত্যু নিয়ে রহস্য

  • আপডেট সময় : রবিবার, ১ অক্টোবর, ২০২৩
  • ১১৭ বার পঠিত

মোঃ আকিদুল ইসলাম সেলিম:-ঝিনাইদহ

সংসারে সচ্ছলতা ও স্বামী সন্তানের ভবিষ্যতের চিন্তা করে গৃহকর্মীর চাকরী নিয়ে ঝিনাইদহের সদর উপজেলার বাথপুকরিয়া গ্রামের রুবেল হোসেনের স্ত্রী ছাবিনা খাতুন (২৪) নামে এক গৃহবধু সৌদি আরবে পাড়ি জমিয়ে ছিলেন। কিন্তু তার কপালে সুখ সয়নি।

সৌদি আরবে যাওয়ার তিনদিনের মাথায় তার রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। ছাবিনার মৃত্যু নিয়ে লোকমুখে নানা কথা শোনা গেলেও কি কারণে তিনি উচ্চ ভবন থেকে পড়ে মারা গেলেন তা নিয়ে রহস্য থেকেই যাচ্ছে। ছাবিনা খাতুন ঝিনাইদহের সদর উপজেলার সাগান্না ইউনিয়নের বাথপুকরিয়া গ্রামের রুবেল হোসেনের স্ত্রী। দেশে তার দুই সন্তান রয়েছে। অনেকেই বলছেন পাশবিক নির্যাতনের শিকার হয়ে তিনি নিজের ইজ্জত বাঁচাতে ৮ তলার বহুতল ভবন থেকে লাফ দেন। সরজমিন তথ্য নিয়ে জানা যায়, গত ২২ সেপ্টেম্বর বাথপুকুরিয়া গ্রামের আব্দুল খালেকের পালিত ছেলে দালাল রফিকুলের মাধ্যমে সৌদির উদ্দেশ্যে পাড়ি জামান ছাবিনা খাতুন। ঢাকার মগবাজার এলাকার তিশা ইন্টারন্যাশনালের মালিক ফারুক হোসেন ছাবিনাকে সৌদি যেতে সহায়তা করেন। ২৪ সেপ্টেম্বর সৌদির মালিকের বাসায় গিয়ে ছাবিনা দালালের কথার সাথে কাজের কোন মিল পায় না। পরিবারের ধারণা মালিকের কু-প্রস্তাব বা পাশবিক নির্যাতনে রাজি না হওয়ায় ছাবিনাকে ৮ তলা ভবন থেকে ফেলে দেওয়া হয়। স্বামী রুবেল হোসেন জানান, দালাল রফিকুল আমাদের বলেছিলেন, মোটা অংকের বেতন তিন বেলা ঠিক মত খাবার ও আকামা সকল কিছুই সৌদির মালিক করে দিবেন। কিন্তু খাবার, মালিকের ব্যবহার ও বেতন কোন কিছুই ঠিকঠাক ছিল না বলে মৃত্যুর আগে ছাবিনা খাতুন তার পরিবারকে জানায়। ছাবিনা তার স্বামীর কাছে জানায় সৌদিতে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে বিক্রি করে দিয়েছে দালাল রফিকুল। ফলে গত ২৬ সেপ্টেম্বর সাবিনা খাতুন বহুতল ভবন থেকে পড়ে তার মৃত্যু হয়েছে বলে প্রচার করে দালাল রফিকুল। গ্রামবাসির অভিযোগ, দালাল রফিকুল এলাকার সহজ সরল কম বয়সী মেয়েদের বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে বিদেশে পাঠিয়ে নির্যাতন ও অর্থ আদায় করেন।

কিছু দিন আগে একই এলাকার হাসান মিয়ার মেয়ে হাসি বেগম দালাল রফিকুলের খপ্পরে পড়ে সৌদি আরব শারিরীক নির্যাতন ও সর্বস্ব হারিয়ে এখন সন্তান নিয়ে দিশেহারা। হাসি বেগম গনমাধ্যমকর্মীদের জানান, দালাল রফিকুল আমাকে ভাল কাজের প্রলোভন দেখিয়ে সৌদি আরব নিয়ে যান। কিন্তু সেখানে গিয়ে মালিকের অনৈতিক প্রস্তাব ও খাবারের কষ্টসহ বিভিন্ন অমানসিক কষ্ট দিতে থাকেন। পরে এলাকায় জানা জানি হলে সাগান্না ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হকের মধ্যস্থতায় আমাকে দেশে ফিরিয়ে আনেন দালাল রফিকুল।

হাসি বেগমের ভাষ্যমতে, তাকে দেশে আনতে ৫০ হাজার টাকা নেয় দালাল রফিকুল। হাসি বেগম আরো জানান, সৌদি আরবের ওই এলাকায় আরো ৫/৬ জন মেয়ে আছেন যারা দালাল রফিকুলের মাধ্যম গিয়ে এখনো নিয়মিত নির্যাতিত হচ্ছে। এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য ও বাথপুকুরিয়া গ্রামের আকবর হোসেন জানান, বিদেশে নারী কর্মী পাঠিয়ে রফিকুলের নির্যাতনের বিষয় নতুন না। এর আগেও বিভিন্ন মেয়েদের নির্যাতনের বিষয়ে শালিশ বিচার করেছি। কিন্তু দালাল রফিকুল তার অভ্যাস পরিবর্তন হয়নি। এ বিষয়ে দালাল রফিকুল ইসলাম জানান, ছাবিনা সৌদি আরবে যাওয়ার তিন দিনের মাথায় মৃত্যু বরণ করেন। তিনি পানির পাইপ দিয়ে নিচে নামতে গিয়ে নিচে পড়ে মারা যান। তবে তার উপর কোন পাশবিক নির্যাতনের তথ্য ময়না তদন্তের রিপোর্টে নেই বলে তিনি দাবী করেন। তিনি দাবী করে ছাবিনা তার আত্মীয়। সৌদি আরব যেতে তার কাছ থেকে তেমন কোন টাকা পয়সা গ্রহন করা হয়নি। মাত্র দেড় লাখ টাকায় ছাবিনাকে সৌদি আরবে পাঠানো হয়।

এ বিষয়ে ঝিনাইদহ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মোহাম্মদ সোহেল রানা জানান, সৌদিতে ছাবিনা নামে কোন নারীর মৃত্যুর খবর তার কাছে নেই। অভিযোগ পেলে বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© নাগরিক এক্সপ্রেস । সর্বসত্ব সংরক্ষিত। নাগরিক এক্সপ্রেস এর প্রকাশিত প্রচলিত কোনো সংবাদ তথ্য ছবি আলোকচিত্র রেখা চিত্র ভিডিও চিত্র অডিও কনটেস্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামত এর জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ণ লেখক এর
Theme Customized By Shakil IT Park