1. admin@nagorikexpress.com : admin :
শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২, ১২:৩৩ পূর্বাহ্ন
নোটিশ :
আপনি কি সাংবাদিক হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে চান? আপনি কি সমাজের সমস্ত অন্যায় অপরাধ দুর্নীতির বিরুদ্ধে লিখতে চান? তাহলে আজই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন. নিরপেক্ষ সংবাদ এর সন্ধানে। আপনার এলাকায় ঘটে যাওয়া যেকোনো অনিয়ম দুর্নীতি আমাদের কাছে ইমেইলের মাধ্যমে পাঠাতে পারেন অথবা নিচে দেওয়া আমাদের নাম্বারে যোগাযোগ করতে পারেন সারাদেশে সাংবাদিক নিয়োগ চলছে সাংবাদিক হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে আজি আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন.
শিরোনাম :
আওয়ামী লীগ কর্মীরা মাঠে নামলে বিএনপি অলিগলিও খুঁজে পাবে না : ওবায়দুল কাদের বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের সকল শহীদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধাঞ্জলি জানিয়েছেন:- সাবেক ছাত্রনেতা নাসিম। বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের সকল শহীদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধাঞ্জলি জানিয়েছেন:- রিপন। নিরাপদ সড়ক চাই লৌহজং শাখা কমিটির পরিচিত সভা মতলব উত্তরে ৩৮শ’ লিটার চোরাই ডিজেল জব্দ বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের সকল শহীদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধাঞ্জলি জানিয়েছেন:- হাফিজ তপদার সোনারগাঁয়ে শেখ কামালের জন্মদিনে উপজেলা আঃলীগের উদ্যোগে দোয়া ও আলোচনা সভা। বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের সকল শহীদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধাঞ্জলি জানিয়েছেন:- আবুল হাসেম রতন। মনোহরদীতে ভরা বর্ষাতেও শ্যালো মেশিন সেচে চলছে রোপা-আমনের আবাদ” জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত।

রান্নায় তেল বেশি দেওয়ায় স্ত্রীর হাতের সাত আঙুল কেটে ফেললেন স্বামী

  • আপডেট সময় : বুধবার, ২৭ জুলাই, ২০২২
  • ২৪ বার পঠিত

এবার নাটোরের হরিশপুরে রান্না করার সময় তরকারিতে তেল বেশি দেওয়ায় কুপিয়ে স্ত্রীর দুই হাতের সাত আঙুল কেটে ফেলার ঘটনায় স্বামী আব্দুল হাই (৪৫) ও তার সহযোগী মো. রাব্বি মিয়াকে (২০) গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। আজ বুধবার ২৭ জুলাই ভোরে অভিযান চালিয়ে নাটোরের হালসা ইউনিয়নের সুলতানপুর এলাকা তাদের গ্রেফতার করে র‌্যাব-৫। গ্রেফতার আব্দুল হাই নাটোরের বড় হরিশপুর এলাকার মৃত ফজলু মিয়ার ছেলে ও মো. রাব্বি মিয়া একই এলাকার আব্দুল খালেকের ছেলে।

জানা যায়, গত রবিবার ২৪ জুলাই নাটোরের হরিশপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যানপাড়া গ্রামে রান্না করার সময় তরকারিতে তেল বেশি দেওয়ার মতো তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কুপিয়ে স্ত্রী মুক্তি বেগমের (৩০) দুই হাতের সাতটি আঙুল কেটে দেন স্বামী আব্দুল হাই। পরে আহত মুক্তি বেগমকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর ভাই বাদী হয়ে নাটোর সদর থানায় একটি মামলা করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে অভিযান চালিয়ে আসামিদের গ্রেফতার করে র‌্যাব-৫।

গ্রেফতারের পর র‌্যাব-৫ সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, বিশেষ গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে বুধবার ভোরে র‌্যাবের একটি দল নাটোরের হালসা ইউনিয়নের সুলতানপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে প্রধান আসামি আব্দুল হাই ও তার মামাতো ভাই মো. রাব্বি মিয়াকে গ্রেফতার করেছে।

সূত্র জানায়, নাটোরের বড় হরিশপুর এলাকার মৃত ফজলুর রহমানের ছেলে আব্দুল হাই আগের তিনটি বিয়ের কথা গোপন রেখে সদর উপজেলার আটঘরিয়া গ্রামের মৃত জয়নাল আবেদিনের মেয়ে মুক্তিকে বিয়ে করেন। ১৩ বছরের সংসারে তাদের দুই সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আব্দুল হাই স্ত্রী মুক্তি বেগমের ওপর নির্যাতন চালিয়ে আসছিলেন। তারপরও সন্তানদের মুখের দিকে তাকিয়ে তিনি তা সহ্য করে আসছিলেন।

গত রবিবার দুপুরে তরকারি রান্না করার সময় তেল বেশি দেওয়ায় আব্দুল হাই ক্ষিপ্ত হয়ে ধারালো হাসুয়া দিয়ে স্ত্রীকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে দুই হাতের সাত আঙুল কেটে দেন। মুখসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করেন। স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এদিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. রেজা উন নবী বলেন, তার হাতের আঙুলের অবস্থা খুবই খারাপ। সাতটি আঙুল কর্তনের পাশাপাশি একটি হাত ভেঙেও গেছে। ভুক্তভোগী মুক্তি বেগম বলেন, ওইদিন দুপুরে তরকারিতে বেশি তেল দিয়েছি বলে মারধর করা শুরু করে। এক পর্যায়ে হাসুয়া দিয়ে আমার গলাকাটার চেষ্টা করলে আমি হাত দিয়ে বাঁধা দিই। তারপরও এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে। আমার মুখে হাসুয়া দিয়ে আঘাত করে। আমি দৌড়ে না পালালে আমাকে মেরেই ফেলতো। আমি এই পাষণ্ডের বিচার চাই।

এ বিষয়ে এলাকাবাসী জানায়, আব্দুল হাই এর আগে আরও তিনটি বিয়ে করেন। সেসব স্ত্রীরা অত্যাচার নির্যাতন সইতে না পেরে তাকে ছেড়ে চলে যান। বর্তমান স্ত্রীও বাবার বাড়ি চলে গিয়েছিলেন। ঈদের আগে আব্দুল হাইয়ের অনুরোধে স্থানীয় কিছু গণ্যমান্য ব্যক্তি তাকে স্বামীর বাসায় ফিরিয়ে আনেন।

এদিকে সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয়, গ্রেফতার আসামিরা মুক্তি বেগমকে প্রতিনিয়ত শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনসহ ওইদিন (২৪ জুলাই) হাসুয়া দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখমের কথা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন। তাদের নাটোর সদর থানায় হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© নাগরিক এক্সপ্রেস । সর্বসত্ব সংরক্ষিত। নাগরিক এক্সপ্রেস এর প্রকাশিত প্রচলিত কোনো সংবাদ তথ্য ছবি আলোকচিত্র রেখা চিত্র ভিডিও চিত্র অডিও কনটেস্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামত এর জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ণ লেখক এর
Theme Customized By Shakil IT Park