1. admin@nagorikexpress.com : admin :
রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০৮:২৮ পূর্বাহ্ন
নোটিশ :
আপনি কি সাংবাদিক হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে চান? আপনি কি সমাজের সমস্ত অন্যায় অপরাধ দুর্নীতির বিরুদ্ধে লিখতে চান? তাহলে আজই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন. নিরপেক্ষ সংবাদ এর সন্ধানে। আপনার এলাকায় ঘটে যাওয়া যেকোনো অনিয়ম দুর্নীতি আমাদের কাছে ইমেইলের মাধ্যমে পাঠাতে পারেন অথবা নিচে দেওয়া আমাদের নাম্বারে যোগাযোগ করতে পারেন সারাদেশে সাংবাদিক নিয়োগ চলছে সাংবাদিক হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে আজি আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন.
শিরোনাম :
ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি নির্বাচিত হলেন নাহিদ তপদার ইয়ারপুর উপ-নির্বাচন, শ্রমিকলীগ নেতা স্বতন্ত্র প্রার্থী সুনামগঞ্জে নিসচার ২৯ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত বিগত বছরের চেয়ে এবার এসএসসি পরীক্ষায় ধলাইতলী দাখিল মাদ্রাসার সাফল্য সুনামগঞ্জে বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির ৫০ তম বার্ষিক সাধারণ সভা ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সহ সম্পাদক হলেন সোনারগাঁয়ের আবু কাউসার। আশুলিয়ায় চাঁদা না পেয়ে নির্মানকাজে বাঁধা, মালামাল লুট নৌকার মনোনয়ন পেতে প্রতারণার আশ্রয়ের অভিযোগ সুনামগঞ্জে দিরাই যুবদল নেতাকে আ.লীগের প্রস্তাবিত সভাপতি পদ থেকে বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন ১ হাজার পুড়িয়া হিরোইন সহ গ্রেফতার ৩

টেকনাফ ব‍্যাংক কর্মকর্তার সাথে সহকারী শিক্ষিকার পরকীয়া প্রেম শীর্ষক মিথ্যা সংবাদের প্রতিবাদ

  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ৪ নভেম্বর, ২০২২
  • ৩৯ বার পঠিত

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

আমি মোঃ সানাউল্লাহ, পিতা আলহাজ্ব বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম মোঃ কলিমুল্লাহ মাস্টার ও টেকনাফ শাখার সরকারি ” পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক” এর ম্যানেজার হয়। গত ০৮/১০ দিন যাবত বিভিন্ন অনলাইন মিডিয়া ও পত্র-পত্রিকায় আমার বিরুদ্ধে টেকনাফ ব্যাংক এর কর্মকর্তার সাথে সহকারী শিক্ষিকা হালিমা আক্তারের পরকীয়া প্রেম সম্পর্কে সম্পূর্ণ মিথ্যা,বানোয়াট , ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত ভাবে মিথ্যা সংবাদ করে আমার মানহানি করেছে। আমি উক্ত সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

প্রকৃত ঘটনা হচ্ছে, হালিমা আক্তার আমার দীর্ঘদিনের সম্মানিত স্যারের মেয়ে ও আত্মীয় হয়। আমাদের দু-পরিবারের মধ্যে পারিবারিক সম্পর্ক ও যোগাযোগ ভালো ।হালিমা আক্তার অবিবাহিত থাকা অবস্থায় সরকারি প্রাইমারিতে শিক্ষক হিসেবে চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত হওয়াতে আমি নিজেই তার সাথে প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে গিয়ে যোগদান কার্যক্রম সম্পন্ন করি যাহা বর্তমান শিক্ষা অফিসার জনাব এমদাদ হোসেন চৌধুরী ও বদলিকৃত অফিস সহকারী মোঃ আলম অবগত আছেন।
পরবর্তীতে তাজমিল উদ্দিন পিতা আবু বক্কর সাং রোজার ঘোনা এর সাথে পারিবারিকভাবে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়। বিয়ের পরপরই তাজমিল উদ্দিন মোটরসাইকেল ক্রয়ের জন্য দু লাখ টাকা যৌতুক ও চাকরির বেতনের টাকা নেওয়ার জন‍্য প্রায় সময় নির্যাতন করে মারধর করার খবর শুনতাম। নির্যাতনের মাত্রা বেড়ে গেলে হালিমা আক্তার সহ্য করতে না পেরে কক্সবাজার আদালতে দুটি মামলা দায়ের করেন এবং কিছুদিনপর তাজমিল উদ্দিন কে তালাক প্রদান করে আলাদা হয়ে যায়। হালিমা আক্তার স্কুলে যাওয়া-আসার সময় তাজমিল উদ্দিন প্রায় সময় তুলে নিতে চাইত এবং অপহরণ করার চেষ্টা করে বলে হালিমা সহ তার পরিবারের সদস্যদের মাধ্যমে শুনেছিলাম।
একদিন হঠাৎ বিকেলে আমার অফিস শেষে মোবাইল করে জানায় যে, তাজমিল উদ্দিন ও কয়েকজন সহযোগী সহ তাকে জোরপূর্বক সিএনজি গাড়িতে করে নিয়ে যাচ্ছিল, তাদের সিএনজি থেকে হালিমা আক্তার দস্তা-দস্তি করে নেমে পড়ে আমাকে তাড়াতাড়ি ঘটনাস্থলে আসেন বলে মোবাইল করলে আমি বাইক নিয়ে ঘটনাস্থলে এসে দেখি তাজমিলের সহযোগিরা তাকে পুনরায় সিএনজিতে উঠানোর চেষ্টা করতেছে। তার সহযোগীদের সাথে দুইজন সংবাদকর্মী/রিপোর্টার ও ঘটনার সাথে জড়িত ছিল।তাদের সাথে আমার কথা কাটাকাটি হয় এবং একপর্যায়ে তাজমিল উদ্দিন ও তার সহযোগীরা তাহাকে গাড়িতে করে যেতে দিবে না বললে আমি অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে আমার বাইক করে হালিমা আক্তার কে তার নিজ বাড়িতে পৌঁছে দিই।পরের দিন হালিমা তার পরিবারের সাথে আলোচনা করে উক্ত বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহোদয় কে লিখিতভাবে অভিযোগ করেন।
পরবর্তীতে বিভিন্ন মিডিয়া ও পত্র-পত্রিকায় আমাদের বাইকে করে যাওয়ার ভিডিও প্রকাশিত হলে আমি আশ্চর্য হয়ে পড়ি এবং আমাদের অজান্তে চুরি করে তাজমিল ও তার সহযোগিরা ঐ সিএনজি গাড়ি করে পিছনে পিছনে ভিডিও করে অশ্লীল গালি-গালাজ করে তিলকে তাল বানিয়ে সংবাদ প্রচার করে আমার সম্মান হানি করেছেন।হালিমা আক্তার আমার ছোট্ট বোনের মত,তার সাথে আমার প্রেমের সম্পর্ক থাকার প্রশ্নই উঠেনা। আমি স্থানীয় ছেলে হওয়াতে এলাকার কিছু অসাধু ব‍্যক্তি, আমার অফিসের অসাধু এক কর্মচারী, জনপ্রতিনিধি ও সাংবাদিক/রিপোর্টার যোগসাজে আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করেছে।তা ছাড়া কিছু সংবাদকর্মী/রিপোর্টার আমার অফিসে নিয়ম বহির্ভূত ভাবে প্রবেশ করে এবং মোবাইলে উল্টাপাল্টা কথা বলে ঘুষ ও চাঁদা দাবী করে ব্ল্যাকমেল করে অপমানিত করেছে যা আমার মোবাইল ও অফিসের সিসি ক‍্যামেরায় সংরক্ষিত আছে।আমি তাদের যোগ্যতা ও সরকারি অনুমোদন আছে কিনা তা জানিয়ে চাঁদাবাজি,সম্মানহানি ও তথ্য প্রযুক্তি আইনে মামলা করতে প্রস্তুতি নিচ্ছি।এরপর ও যদি এধরনের কেউ আমাকে নিয়ে মিথ্যা সংবাদ প্রচার, সম্মানহানি সহ বিভিন্নভাবে হয়রানি করার চেষ্টা করে তাহলে উক্ত জড়িতদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত প্রমাণ নিয়ে আদালতে আশ্রয় নেব এবং তাদের মোবাইল নাম্বার, ফেসবুক আইডি, ইমো,হোয়াটসঅ্যাপ সহ কতজনকে এভাবে হয়রানি
করেছে তাহা প্রকাশ করার জন্য যথাযথ স্থানে অভিযোগ করব।
তাই আমার ঊর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ,প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ, আইন শৃঙ্খলাবাহিনী এবং জনসাধারণকে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি
প্রতিবাদকারী
মোঃ সানা উল্লাহ
ম্যানেজার
পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক
টেকনাফ শাখা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© নাগরিক এক্সপ্রেস । সর্বসত্ব সংরক্ষিত। নাগরিক এক্সপ্রেস এর প্রকাশিত প্রচলিত কোনো সংবাদ তথ্য ছবি আলোকচিত্র রেখা চিত্র ভিডিও চিত্র অডিও কনটেস্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামত এর জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ণ লেখক এর
Theme Customized By Shakil IT Park