1. admin@nagorikexpress.com : admin :
শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০৫:৩৫ পূর্বাহ্ন
নোটিশ :
পরিচালনা পরিষদ: জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে চলছে বাংলাদেশ দুর্বার গতিতে। নাগরিক এক্সপ্রেস এর আইডি কার্ড এর মেয়াদ সম্পূর্ণ কোন সাংবাদিক নেই . সকলের আইডি কার্ডের মেয়াদ শেষ। দ্রুত আইডি কার্ড সংগ্রহ করুন জনপ্রিয় পত্রিকা নাগরিক এক্সপ্রেস এর পক্ষ থেকে সবাইকে পরিচালনা পরিষদের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন । বর্তমানে সারা বাংলাদেশে আইডি কার্ড ধারি আমাদের কোন সংবাদ কর্মী নেই যারা আছেন তাদের আইডি কার্ডের মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে তাই উক্ত সাংবাদিকগণ আমাদের প্রতিষ্ঠানে কর্মরত আছেন বলে বিবেচিত হবে না। যদি কারো আইডি কার্ডের প্রয়োজন হয় তাহলে খুব শীঘ্রই আমাদের সাথে যোগাযোগ করবেন। আপনি কি সাংবাদিক হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে চান? আপনি কি সমাজের সমস্ত অন্যায় অপরাধ দুর্নীতির বিরুদ্ধে লিখতে চান? তাহলে আজই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন. নিরপেক্ষ সংবাদ এর সন্ধানে। আপনার এলাকায় ঘটে যাওয়া যেকোনো অনিয়ম দুর্নীতি আমাদের কাছে ইমেইলের মাধ্যমে পাঠাতে পারেন অথবা নিচে দেওয়া আমাদের নাম্বারে যোগাযোগ করতে পারেন সারাদেশে সাংবাদিক নিয়োগ চলছে সাংবাদিক হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে আজ ই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন.
শিরোনাম :
ভাঙ্গায় মৎস্যজীবিদের মাঝে বিনামূল্যে উপকরণ ও স্মার্ট আইডি কার্ড  বিতরণ  ভাঙ্গায় ধর্ষণের ঘটনায়  প্রবাসী নারী ৪ মাসের অন্তঃস্বত্তাঃ ধর্ষক শ্রীঘরে মাদারীপুরে দুগ্ধপোষ্য ২ সন্তানকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে মানসিক ভারসাম্যহীন এক মা ভাঙ্গায় নারীদের অর্থনৈতিক উন্নয়নে উই প্রকল্পের  দক্ষতা উন্নয়ন বিষয়ক কর্মশালা কোটা বহালের প্রতিবাদে ৪র্থ দিনে বশেমুরবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক অবরোধ  কিশোর গ্যাং ও চাঁদাবাজির নিউজ করায় শীর্ষ সন্ত্রাসী পরিচয়ে ফোন দিয়ে মেরে ফেলার হুমকি। আগামী নির্বাচনে সর্বোচ্চ ভোট দিয়ে নৌকাকে নির্বাচিত করে প্রধানমন্ত্রীকে উপহার দিব ভাঙ্গায় ফুলেল শুভেচ্ছায় বরন করা হলো নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান- সদস্যদের পূর্বশত্রুতার জেরে এক যুবকের হাত কুপিয়ে হাতের কব্জি ফেলে দিয়েছে প্রতিপক্ষের লোকজন। মাদারীপুরে মাফিয়া মিলনের বিচারের দাবিতে ভূক্তভূগীদের সংবাদ সম্মেলন

মাদারীপুর ৩ আসনে ঈগল সমর্থক খুন, যা বলছেন দুই প্রার্থী

  • আপডেট সময় : রবিবার, ২৪ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ১৬১ বার পঠিত

মাদারীপুর প্রতিনিধি

মাদারীপুর-৩ আসনে স্বতন্ত্র সমর্থক এসকেন্দার আলী খাঁ’র খুন হওয়া নিয়ে ঈগলের প্রার্থী অভিযোগ তুলেছেন, ভোটে ভীতি ও ত্রাস সৃষ্টি করতেই নৌকার কর্মী-সমর্থকরা এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে।

আর নৌকার প্রার্থীর অভিযোগ, এসকেন্দার পারিবারিক বিরোধে খুন হলেও সরকার ও আওয়ামী লীগকে বিতর্কিত করতেই তার কর্মী-সমর্থকদের বিরুদ্ধে বানোয়াট অভিযোগ তোলা হচ্ছে।

শনিবার ভোরে কালকিনির রায়পুর ভাটবালী গ্রামে এসকেন্দারের ওপর হামলা করা হয়। তাকে পিটিয়ে, কুপিয়ে জখম করাসহ দুই পায়ের রগও কেটে ফেলা হয়।

গুরুতর আহত অবস্থায় এসকেন্দারকে বরিশালের শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে দুপুরে সেখানই তিনি মারা যান।

এসকেন্দারের হত্যার ঘটনা নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন মাদারীপুর-৩ আসনে ঈগল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী তাহমিনা সিদ্দিকী। তিনি কালকিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য।

এরপরই সাংবাদিকদের বলেন একই আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য ও নৌকার প্রার্থী আবদুস সোবহান গোলাপ। তিনি আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক।

নিহত এসকেন্দার আলী খাঁ ছিলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী ঈগলের সমর্থক ও আওয়ামী লীগের ওয়ার্ড কমিটির সদস্য।
নিহত এসকেন্দার আলী খাঁ ছিলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী ঈগলের সমর্থক ও আওয়ামী লীগের ওয়ার্ড কমিটির সদস্য।
এসকেন্দারের মৃত্যুর জন্য নৌকার সমর্থকদের সরাসরি দায়ী করে ঈগলের নির্বাচনী পরিচালনা পর্ষদের সদস্য ও কালকিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তৌফিকুজ্জামান শাহীন।

ঈগল সমর্থকের মৃত্যুর প্রতিবাদে কালকিনিতে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। সেখানে নৌকার সমর্থকদের দায়ী করে স্লোগান দেওয়া হয়।

স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থককে হত্যা নিয়ে দেশজুড়ে আলোচনা শুরু হয়। নির্বাচন কমিশনার আনিছুর রহমান বলেন, স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকের মৃত্যুর ঘটনায় রিপোর্ট চাওয়া হয়েছে। তা পেলেই কঠোর সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।
কালকিনিতে ঈগল সমর্থককে কুপিয়ে হত্যা
যা বলছেন তাহমিনা সিদ্দিকী
সংবাদ সম্মেলনে তাহমিনা বলেন, এসকান্দার খাঁ আট নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সদস্য। উনি আমার নির্বাচন করছেন। এজন্য তাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।
‘এ জন্য আমিও শঙ্কিত, ওখানকার ভোটাররাও শঙ্কিত। ভোটের প্রচারণায় তারা আর নামতে সাহস পাবে কিনা, এটা নিয়েও আমি শঙ্কা বোধ করছি।’

স্বতন্ত্র প্রার্থীদের ভোটের উৎসাহ দেওয়ার বিষয় উল্লেখ করে তাহমিনা বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে শেখ হাসিনা যে ঘোষণা দিয়েছেন, তাকেও প্রশ্নবিদ্ধ করা হচ্ছে এখানে।

‘যিনি নৌকার প্রার্থী, তিনি কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশ না সম্পাদকের দায়িত্বে। কিন্তু আজকে তার কর্মী-সমর্থকরা যা ঘটালো, এ নিয়ে তার কোনো প্রতিক্রিয়াও নেই, পদক্ষেপও নেই। ওই পরিবারকে তিনি কোনো সান্ত্বনা দিতে যান নাই, বা বিষয়টা দেখবেন বলেও আশ্বস্ত করেননি।’

স্বতন্ত্র প্রার্থী তাহমিনা বলেন, ‘কাজেই আমার মনে হয়, এটা নির্বাচন কেন্দ্রিক এবং উল্টো আরো ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন। আমার মনে হয়, আমার পক্ষে কোনো প্রচারণা চালাতে না সেজন্য এই বিভীষিকাময় পরিস্থিতি সৃষ্টি করা হয়েছে।

‘আমি এই হত্যার কঠিন বিচার চাই। আইনগত বিচার চাই। শান্তিপূর্ণ নির্বাচন চাই, যাতে ভোটাররা নির্বিঘ্নে ভোটকেন্দ্রে যেতে পারে এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণামতে, প্রত্যেকের ভোট প্রত্যেকে যেন দিতে পারে এবং সঠিকভাবে নির্বাচনের ফলাফল যেন প্রকাশিত হয়।’

ঈগল সমর্থককে হত্যায় কঠোর হবে ইসি
যা বলছেন আবদুস সোবহান গোলাপ
এসকেন্দার খাঁ খুন হওয়া নিয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা ও মাদারীপুর-৩ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুস সোবহান গোলাপ বলেন, ‘আপনারা যা জানেন, আমি তাই জানি। আপনারা যেভাবে শুনেছেন, আমি সেভাবেই শুনেছি।’

তাহমিনা সিদ্দিকীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মানতেও চান না গোলাপ। তিনি বলেন, ‘স্বতন্ত্র প্রার্থী আপনারা বলেন। আমিতো স্বতন্ত্র প্রার্থী বলি না, বিদ্রোহী প্রার্থী বলি। সে আওয়ামী লীগের উপজেলা সভাপতি। সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি। সে কীভাবে স্বতন্ত্র প্রার্থী।’

খুনের কারণ হিসেবে গোলাপ বলেন, ‘আপন চাচা-ভাতিজা দ্বন্দ্ব, জমিজমা নিয়ে বহুদিন আগে থেকেই। এটা নতুন কিছু না। দীর্ঘদিন ধরেই এই জমিজমা নিয়ে গণ্ডগোল হচ্ছে, বিরোধ হচ্ছে। সেই বিরোধের জেরেই আজকে সকালে একইভাবে ঝগড়াঝাঁটি হয়েছে। এক পর্যায়ে বোধহয় একজন আহত হয়েছেন। আমি শুনতে পেলাম হাসপাতালে একজন মারা গেছেন। মারা গেছেন কিনা, আমি জানি না! আপনাদের মতো আমিও শুনলাম এটা।’

নৌকার প্রার্থীর দাবি, ‘পুরোপুরি জমিজমা-পারিবারিক ব্যাপার এটা। কেউ যদি এটাতে রাজনৈতিক রঙ দেয় যে, স্বতন্ত্র বা বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থককে নৌকা প্রার্থীর সমর্থকরা মারছে, এটা মনে হয় ভিত্তিহীন। এটা অপপ্রচার করছে। এটা কিন্তু সরকারের বিরুদ্ধে চলে যায়।

‘প্রধানমন্ত্রী নৌকার প্রার্থী দিয়েছে। কাজেই ওর (স্বতন্ত্র প্রার্থী) কথা সরকারের বিরুদ্ধে যায়। বিএনপি জামায়াতের ভাষায় ওরা কথা বলে।

ঈগলের প্রার্থীকে উদ্দেশ্য করে আবদুস সোবহান গোলাপ বলেন, ‘তার বোধগম্য হওয়া উচিত, সে আওয়ামী লীগ হিসেবে দাবি করে। কিন্তু কথা বলছে, আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে, নৌকার বিরুদ্ধে, সরকারের বিরুদ্ধে। আমার মনে হয় সে আত্মঘাতী কাজ করছে। এটা থেকে তার বিরত থাকা উচিত।’

পারিবারিক দ্বন্দ্বকে ‘রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ড’ হিসেবে চালানোকে ‘মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও অসত্য’ ঘটনা হিসেবে উল্লেখ করেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় এই নেতা। তিনি বলেন আরও বলেন, আমার মনে হয়, (ভোটের) পরিবেশটাকে সে নষ্ট করার চেষ্টা করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© নাগরিক এক্সপ্রেস । সর্বসত্ব সংরক্ষিত। নাগরিক এক্সপ্রেস এর প্রকাশিত প্রচলিত কোনো সংবাদ তথ্য ছবি আলোকচিত্র রেখা চিত্র ভিডিও চিত্র অডিও কনটেস্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামত এর জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ণ লেখক এর
Theme Customized By Shakil IT Park