1. admin@nagorikexpress.com : admin :
বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১:৩৪ পূর্বাহ্ন
নোটিশ :
পরিচালনা পরিষদ: নাগরিক এক্সপ্রেস এর আইডি কার্ড এর মেয়াদ সম্পূর্ণ কোন সাংবাদিক নেই . সকলের আইডি কার্ডের মেয়াদ শেষ। দ্রুত আইডি কার্ড সংগ্রহ করুন জনপ্রিয় পত্রিকা নাগরিক এক্সপ্রেস এর পক্ষ থেকে সবাইকে পরিচালনা পরিষদের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন । বর্তমানে সারা বাংলাদেশে আইডি কার্ড ধারি আমাদের কোন সংবাদ কর্মী নেই যারা আছেন তাদের আইডি কার্ডের মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে তাই উক্ত সাংবাদিকগণ আমাদের প্রতিষ্ঠানে কর্মরত আছেন বলে বিবেচিত হবে না। যদি কারো আইডি কার্ডের প্রয়োজন হয় তাহলে খুব শীঘ্রই আমাদের সাথে যোগাযোগ করবেন। আপনি কি সাংবাদিক হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে চান? আপনি কি সমাজের সমস্ত অন্যায় অপরাধ দুর্নীতির বিরুদ্ধে লিখতে চান? তাহলে আজই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন. নিরপেক্ষ সংবাদ এর সন্ধানে। আপনার এলাকায় ঘটে যাওয়া যেকোনো অনিয়ম দুর্নীতি আমাদের কাছে ইমেইলের মাধ্যমে পাঠাতে পারেন অথবা নিচে দেওয়া আমাদের নাম্বারে যোগাযোগ করতে পারেন সারাদেশে সাংবাদিক নিয়োগ চলছে সাংবাদিক হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে আজি আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন.
শিরোনাম :
ভাঙ্গায় নারীদের অর্থনৈতিক উন্নয়নে উদ্বোধন হলো সদাই-পাতি ষ্টোরের অমর ২১শে ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন-মোহাম্মদ আব্দুল গনি।।  দোয়ারা উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী লাইলী আক্তার লাকির গনসংযোগ ও নির্বাচনি প্রচরণা “রমজান মাসে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য সহনশীল পর্যায়ে রাখার আহবান ডক্টর সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদের। মাদারীপুরের বাদামতলা এলাকায় টিপু মুন্সি ও তিতু মুন্সির হামলায় গুরুতর আহত মাদারীপুরে ইতালি প্রবাসীর স্ত্রীর কাছে চাঁদাবাজির অভিযোগ ভাঙ্গায় ব্যবসায়ীর বাড়িতে দুঃসাহসিক চুরি মহেশপুরে বিদ্যুতের তার ছিড়ে রাস্তায় পড়ে একজনের মৃত্যু, আহত-১ ভাঙ্গায় ইউপি চেয়ারম্যানকে জড়িয়ে নানা অপপ্রচার : প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন সাপাহারে দৈনিক মানবজমিনের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন

মধ্যবিত্ত পরিবার থেকে পুলিশ ক্যাডার নাসির

  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ১৮ আগস্ট, ২০২৩
  • ৭৪ বার পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন:

পটুয়াখালী জেলার বাউফল উপজেলার কৃতী সন্তান মোঃ নাসির উদ্দিন টানা তিনবার বিসিএস ক্যাডার হন। ৩৮ তম বিসিএস পরীক্ষায় ফিসারিজ ক্যাডারের মাধ্যমে শুরু হয় সফলতা। ৪০ তম বিসিএস পরীক্ষায় আবারো ফিসারিজ ক্যাডার এবং সর্বশেষ ৪১ তম বিসিএস পরীক্ষায় পুলিশ ক্যাডারের সুপারিশ প্রাপ্ত হন।

১৯৯৪ সালে বাউফল উপজেলার এক মধ্যবিত্ত পরিবারে জন্ম তার। গ্রামীণ পরিবেশে বেরে উঠা। তিন ভাইয়ের মধ্যে পরিবারের সবচেয়ে ছোট ছেলে তিনি। ছোট বেলা থেকেই ছিলেন তীক্ষ্ণ মেধার অধিকারী।

নিজ এলাকার দক্ষিণ গোসিংগা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভর্তির মাধ্যমে শুরু হয় শিক্ষা জীবনের পদচারনা। সেখান থেকে শুরু তার স্বপ্নবোনা ও সফলতা।
প্রাথমিক গণ্ডি পেরোনোর পর নিজ এলাকার স্বনামধন্য সোনামদ্দিন মৃধা মাধ্যমিক বিদ্যালয় ভর্তি হন। ৮ম শ্রেনিতে ট্যালেন্টপুল বৃত্তি এবং বাউফল উপজেলায় প্রথম স্থান অধিকার করেন। তখন থেকেই সকলের মধ্যে সারা পরে যায়।
একই বিদ্যালয়ে তিনি এসএসসি পরীক্ষায় গোল্ডেন এ+ পান। এরপর নটরডেম কলেজে কলেজে একাদশ শ্রেণীতে ভর্তি হন। মধ্যেবিত্ত পরিবারের সন্তান হওয়ায় শহরে লেখাপড়া করা মোটেও সহজ ছিল না। কঠোর পরিশ্রমের মধ্যে দিয়ে এইচএসসি পরীক্ষায় এ+ পেয়ে তিনি উত্তীর্ণ হন।

এরপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১২-১৩ সেশন এ মৎস্য বিজ্ঞান বিভাগে ভর্তি হন এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করেন।

শিক্ষা জীবন থেকে তিনি বিসিএস পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিতে থাকেন। ৩৮ ও ৩৯ তম বিসিএস এ ফিসারিজ ক্যাডার হয়েও থেমে থাকেননি তিনি। আরো সফলতার জন্য তিনি কঠোর পরিশ্রম করতে থাকেন। এবং ৪১ তম বিসিএস পরীক্ষায় তার সেই কাঙ্খিত সফলতা অর্জিত হয়। ৪১ তম বিসিএস পরীক্ষায় তিনি পুলিশ ক্যাডারের সুপারিশ প্রাপ্ত হন।

পুলিশ ক্যাডার হওয়ার কারন জানতে চাইলে তিনি বলেন,
“শুরু থেকেই বিসিএস পুলিশ এর প্রতি আমার আলাদা একটা আকর্ষণ কাজ করতো। দেশের জন্য বড় পরিসরে কাজ করার জন্য এটি একটি ভালো মাধ্যম। তাছাড়া ইউনিফর্ম জব হবার কারনেও ভালো লাগতো।
আমি গ্রাম থেকে উঠে আসা মধ্যবিত্ত পরিবারের একজন। শুরু থেকেই আমার উপর আমার পরিবার, আত্মীয়স্বজন এবং সমাজের একটা আকাঙ্ক্ষা ছিলো যে ভালো কিছু করবো। সেটা সবসময়ই আমাকে কঠোর পরিশ্রম করে উৎসাহ প্রদান করেছে। আর এটাই আজকে আমাকে এই অবস্থানে এনেছে বলে আমি বিশ্বাস করি।”

তার সফলতায় আনন্দিত তার পরিবার, শিক্ষক ও এলাকাবাসী। এলাকাবাসী জানায়, ” ও খুব (মোঃ নাসির উদ্দিন) ভালো মনের মানুষ। ছোটবেলা থেকেই নম্র ভদ্র ছিলেন। মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান হওয়ায় পড়ালেখার পাশাপাশি কাজও করতে হতো। তবুও সে থেকে থাকেনি। কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে সে তার সফলতা ছিনিয়ে এনেছে। আমরা মনে করি এ সফলতা দাবিদার সে নিজেই। আমরা দোয়া করি দেশ‌ ও জাতির জন্য কল্যাণ বয়ে আনুক।”

তার সফলতার পিছনে থাকা মানুষের কথা জানতে চাইলে তিনি বলেন, “আমার এই দীর্ঘ সময়ে আমার বাবা-মা আমাকে সব ধরনের সাহায্য প্রদান করেছে। তাদের কষ্টের ফসল আজকে আমার এই অবস্থান। এ পর্যন্ত আসতে আমার অনেক বাধাঁই অতিক্রম করতে হয়েছে। সবার দোয়া আশির্বাদে আমি সব অতিক্রম করতে পেরেছি।”

তার দ্বায়িত্ব পালন নিয়ে তিনি বলেন, “রাষ্ট্র আমাকে যে দায়িত্ব দিবে আমি সেগুলো সততা ও নিষ্ঠার সাথে পালন করার চেষ্টা করবো। অন্যায়ের সাথে কখনো আপোষ করবো না। দেশ ও জাতির কল্যাণে কাজ করে যাবো।”

কীভাবে প্রস্তুতি নিয়েছেন?—এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “পিএসসির সিলেবাস, প্রশ্নের ধরন ও আগের বিসিএসের প্রশ্ন সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা নিয়েছি। নিয়মিত লেখাপড়া, অনুশীলন ও পরীক্ষার মাধ্যমে প্রস্তুতিতে জোর দিয়েছি। একই বিষয়ে অনেকগুলো বই কম করে না পড়ে, দু-একটা বই বিস্তারিত পড়েছি। পাশাপাশি নিয়মিত বাংলা ও ইংরেজি পত্রিকা পড়তাম। সাম্প্রতিক বিষয়াবলি সম্পর্কে মোটামুটি ধারণা রাখতাম। অন্য প্রার্থীদের চেয়ে আমি একটা জায়গায় ব্যতিক্রম ছিলাম। গ্রুপ স্টাডি করতাম না বললেই চলে। নিজে নিজে বাসায় নিরিবিলি লেখাপড়া করতে পছন্দ করতাম।”

ভবিষ্যত বিসিএস পরীক্ষার্থীদের উদ্দেশ্য তিনি বলেন, “এটি একটি চাকরি মাত্র। ধৈর্য আর কঠোর পরিশ্রম করে এটা অর্জন করতে হয়। পরিশ্রম করলে আপনি সফল হবেনই। সেটা আজ হোক কিংবা কাল। তবে লেগে থাকতে হবে। না হলেও হতাশ হওয়া যাবেনা। দেশে আরো অনেক ভালো চাকরি আছে।”

উল্লেখ্য তিনি বর্তমানে বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত আছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© নাগরিক এক্সপ্রেস । সর্বসত্ব সংরক্ষিত। নাগরিক এক্সপ্রেস এর প্রকাশিত প্রচলিত কোনো সংবাদ তথ্য ছবি আলোকচিত্র রেখা চিত্র ভিডিও চিত্র অডিও কনটেস্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামত এর জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ণ লেখক এর
Theme Customized By Shakil IT Park